• ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২২শে রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

পদ্মায় ধরা পড়ল ১০ মণের ‘শাপলা পাতা’ মাছ

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত আগস্ট ২৯, ২০২১
পদ্মায় ধরা পড়ল ১০ মণের ‘শাপলা পাতা’ মাছ

বিবিএন ডেস্ক: রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায় পদ্মা নদীতে এবার জেলেদের জালে বিশাল আকারের একটি ‘শাপলা পাতা’ মাছ ধরা পড়েছে। আজ রোববার ভোরের দিকে দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকার জেলে ইসহাক সরদার ও তাঁর ভাতিজা বাবু সরদারের জালে মাছটি ধরা পড়ে। রাজবাড়ীর এক ব্যবসায়ীর কাছে আট হাজার টাকা মণ দরে মাছটি বিক্রি করে দেন তাঁরা। উৎসুক মানুষ মাছটি দেখতে ভিড় করেন। সূত্র: প্রথম আলো

মৎস্যজীবী বাবু সরদার বলেন, আজ ভোরের দিকে তাঁরা দৌলতদিয়ার ৭ নম্বর ফেরিঘাটের কাছে জাল ফেলেন। জালটি টেনে তোলার সময় ভারী লাগে। নৌকায় থাকা ছয় থেকে সাতজন মিলেও জাল টেনে তুলতে পারছিলেন না। পরে আশপাশের নৌকা থেকে আরও তিন-চারজনকে ডেকে এনে জালটি নৌকায় তোলেন। তখন দেখতে পান, তাঁদের জালে ধরা পড়েছে ‘শাপলা পাতা’ মাছ। তাঁরা ১১ থেকে ১২ জন মিলে মাছটিকে নৌকা থেকে ফেরিঘাট এলাকায় এনে ভ্যানে তোলেন।

বাবু সরদারের ভাষ্য, মাছটি তাঁরা দৌলতদিয়া ফেরিঘাটসংলগ্ন মাছবাজারের দুলাল মণ্ডলের আড়তে তোলেন। সেখানে ওজন দেওয়ার কোনো ব্যবস্থা না থাকায় অন্যত্র নিয়ে যান। ওজন দিয়ে দেখেন, মাছটির ওজন ৪১০ কেজি। সে হিসাবে শাপলা পাতা মাছটির ওজন হয়েছে ১০ মণের একটু বেশি।

নৌকার মালিক ইসহাক সরদার বলেন, ভরা বর্ষা মৌসুমের কারণে নদীতে তেমন বড় মাছ ধরা পড়ছে না। মাঝেমধ্যে দু–একটি মাছ পাওয়া যায়। তবে শাপলা পাতাজাতীয় মাছ এই অঞ্চলে দেখা যায় না। বেশ কয়েক বছর পর ‘শাপলা পাতা’ মাছ ধরা পড়েছে। ১০ থেকে ১২ বছর আগে একবার এত বড় একটি মাছ ধরা পড়েছিল। তাঁরা মাছটি রাজবাড়ীর কুটি ব্যাপারী নামের এক মৎস্য ব্যবসায়ীর কাছে আট হাজার টাকা মণ দরে বিক্রি করেন। মাছটি দেখতে মানুষের ভিড়ের কারণে দৌলতদিয়া ঘাট থেকে গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ পর্যন্ত আসতে দুই ঘণ্টার মতো সময় লেগেছে।

মোটরসাইকেলে করে স্ত্রী–সন্তানকে নিয়ে রাজবাড়ী থেকে ঢাকায় যাচ্ছিলেন ঢাকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মী মাইনদ্দিন। তিনি শাপলা পাতা মাছটি দেখে মোটরসাইকেল থামিয়ে দাঁড়িয়ে যান। এ সময় তিনি বলেন, ‘আমার জীবনে এই ধরনের মাছ দেখিনি। মাছটি দেখে তাই দাঁড়ালাম।’

গোয়ালন্দ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. রেজাউল শরীফ বলেন, শাপলা পাতা একটি সামুদ্রিক মাছ। এই অঞ্চলের মানুষের কাছে বেশি পরিচিত না থাকায় এর চাহিদা কম। তবে সমুদ্রবেষ্টিত অঞ্চলের মানুষের কাছে খুবই সুস্বাদু ও জনপ্রিয় একটি মাছ এটি। তারপরও ‘শাপলা পাতা’ মাছ ধরা পড়ায় এই অঞ্চলের মানুষের জন্য এটি সুখবর। মাছটি রাজবাড়ীর কুটি ব্যাপারী কেটে খুচরা আকারে বিক্রি করেছেন বলে তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •