• ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

নবীগঞ্জের সেই পশুর হাট বন্ধ করলো প্রশাসন

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জুলাই ৩, ২০২১
নবীগঞ্জের সেই পশুর হাট বন্ধ করলো প্রশাসন

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ করোনাভাইরাস সংক্রামণ রোধে কঠোর বিধি নিষেধ ও সারাদেশে সর্বাত্মক লকডাউনের ঘোষণা করা হয়েছে। কঠোর এই লকডাউন উপেক্ষা করে নবীগঞ্জে বসেছিল জনতার বাজার পশুহাট । নির্ধারিত সময়ের পর বাজার বন্ধ করে দেয় উপজেলা প্রশাসন।

শনিবার (০৩ জুলাই) বিকেলে সাড়ে ৫টায় নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উত্তম কুমার দাশ জনতার বাজার পশুর হাট বন্ধ করে দেন।

জানা যায়, জনতার বাজার পশুহাট ঢাকা সিলেট মহাসড়ক ঘেঁষা নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নে অবস্থিত । আসন্ন ঈদ-উল আজহাকে সামনে রেখে জনতার বাজার পশুহাট শনিবার-সোমবার বসে। শনিবার (৩ জুলাই) সকাল থেকে জনতার বাজার পশুর হাটে বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে কোরবানির পশু কেনাবেচা করতে আসেন ক্রেতা-বিক্রেতারা। সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলছে কেনাবেচা। এ সময় অধিকাংশ ক্রেতা-বিক্রেতার মুখেই ছিল না মাস্ক। কারও কারও মাস্ক থাকলেও তা হয় পকেটে। অনেকের মাস্ক ছিল থুতনির মাঝে।

খবর পেয়ে শনিবার বিকেলে নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উত্তম কুমার দাশ একদল পুলিশ সহকারে জনতার জনতার বাজার পশুর হাটে যান। মাইকিং করে স্বাস্থ্য সচেনতা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানান। পরে সেখানে বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে আলাপ আলোচনা পরে পশুর হাট বন্ধ করে দেয়া হয়।

নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উত্তম কুমার দাশ বলেন, জনতার বাজার পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছেনা খবর পেয়ে বাজারে গিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে মাইকিং করি। পরবর্তী বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে আলাপ করে বিকেল ৫টার পর বাজার বন্ধ করে দেয়া হয়।

এ প্রসঙ্গে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ মহি উদ্দিন বলেন, কঠোর বিধি-নিষেধের প্রজ্ঞাপনে পশুর হাট নিয়ে সু-নির্দিষ্ট ভাবে কিছু বলা হয়নি। অন্যান্য বাজারের মতো পশুর হাটে শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলতে পারবে। আজ ৫টার পর প্রশাসন গিয়ে বাজার বন্ধ করে দিয়েছে।