• ২৮শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৪ঠা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সিলেট হোটেল নুরজাহানে লন্ডন ফেরত নারীকে যৌন হয়রানি,হোটেল কর্মচারী কারাগারে

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত এপ্রিল ২, ২০২১
সিলেট হোটেল নুরজাহানে লন্ডন ফেরত নারীকে যৌন হয়রানি,হোটেল কর্মচারী কারাগারে

 

বিবিএন নিউজ ডেস্ক:: আবাসিক হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা লন্ডন ফেরত নারী যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ অভিযুক্ত হোটেল কর্মচারি শাহীনকে আটক করেছে। এ ঘটনা ঘটে নগরীর দরগাহ গেইটস্থ নুরহাজান গ্র্যান্ড আবাসিক হোটেলে।

শুক্রবার আটককৃত শাহীনকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়েরকৃত মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিম জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত হোটেলের কর্মচারী শাহীন লন্ডন ফেরত ওই নারীকে মোবাইলে ফোন দিয়ে বার বার বিরক্ত করে। একপর্যায়ে শাহীন রাত সোয়া ১১টার দিকে ওই নারীর রুমের দরজায় কড়া নাড়ে। দরজা খুলতেই শাহীন ভেতর প্রবেশ করে শ্লীলতাহানীর জন্য ধস্তাধস্তি শুরু করে। এ সময় ওই নারীর চিৎকারে আশপাশের কক্ষের লোকজন এগিয়ে এসে শাহীনের কবল থেকে তাকে উদ্ধার করেন। ঘটনাটি ওই নারীর পরিবারের লোকজনকে জানালে তারা পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে শাহীন নামের ওই কর্মচারীকে আটক করে।

জামাল আহমদ নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, কোয়ারেন্টাইন থাকা লন্ডন প্রবাসীর রুমে গিয়ে ওই নারীর হাতে পায়ে ধরে বিভিন্নভাবে যৌন হয়রানির চেষ্টা করে। শুরুতে হোটেল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবগত করলে তারা পাত্তা দেয়নি।

ওই প্রবাসী নারীর স্বজনরা অভিযোগ করেন, হোটেল কর্তৃপক্ষকে ঘটনার সিসি ফুটেজ দেখাতে বলা হয়। কিন্তু তারা জানায় সিসি ক্যামেরা নষ্ট বলে। স্বজনরা বলেন, এতো বড় নামীদামী হোটেল অথচ সিসি ক্যামেরা নষ্ট, এটা ভাবাই যায় না। হোটেল কর্তৃপক্ষের ঘটনাটি আড়াল করতে তারা রহস্যজনক কথাবার্তা বলছে।

এ ব্যাপারে আবাসিক হোটেলের মালিক সিলেটে বেসরকারী হাসপাতালের মালিকদের সংগঠন প্রাইভেট মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নাসিম আহমদ। ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, হোটেলে যে ব্যবস্থাপনা আছে, তাতে এ রকম ঘটনার কোনো সুযোগ নেই। এরপরও আমরা অভিযোগ পাওয়া মাত্র অভিযুক্ত কর্মচারীকে পুলিশে সোপর্দ করে তদন্ত করার আহ্বান জানিয়েছি। তদন্তে উত্ত্যক্ত করার সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা নিতে হোটেল কর্তৃপক্ষ সর্বাত্মক সহায়তা করবে।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি এস এম আবু ফরহাদ জানান, শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ওই নারী বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় হোটেল কর্মচারী যুবক শাহিন আহমদকে একমাত্র আসামী করা হয়েছে। এ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।
তিনি বলেন, আমরা জেলা প্রশাসনকে বিষয়টি অবগত করেছি। হোটেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসন ব্যবস্থা নিতে পারে।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে করে ওই নারীসহ ৮৩ জন যাত্রী ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান। এসব যাত্রীর মধ্যে হোটেল নূরজাহানে ৬, হোটেল অনুরাগে ১১ জন, হোটেল হলিগেটে ১৭, হোটেল হলি সাইডে ৩, হোটেল স্টার প্যাসিফিকে ১, হোটেল লা রোজে ১৭, হোটেল লা ভিস্তায় ৮, হোটেল রেইন বো গেস্ট হাউজে ১০, রয়েল প্লামে ১০ জনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়।(জালালাবাদ)