• ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১০ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

প্রধানমন্ত্রী আপনাদের পাশে আছেন,ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের শান্তনা দান কালে এমপি মানিক

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত এপ্রিল ১১, ২০২২
প্রধানমন্ত্রী আপনাদের পাশে আছেন,ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের শান্তনা দান কালে এমপি মানিক

 

ছাতক প্রতিনিধি: ছাতকের বিভিন্ন হাওরে আকস্মিক পাহাড়ি ঢলে ফসলহারা কৃষকদের পাশে দাড়িয়েছেন সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক। সোমবার দিনব্যাপী উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের জল্লার হাওর,ধল হাওর, পাতলা চুরা হাওর, বারোমুখা হাওর, বড়বিল এবং চরমহল্লা ইউনিয়নের বাগাচরা হাওর, বুড়াইগিরি হাওর, বড়গাট্টি হাওর, মৌ-আলু ও হুগলি হাওর এলাকা পরিদর্শন করেন তিনি। ভরদুপুরে হাওরে এমপি মানিককে পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে স্থানীয় কৃষক আব্দুল হামিদ, আব্দুল জলিল, কমর উদ্দিন, গিয়াস উদ্দিন ও সৈয়দ মুস্তাক আহমদ জানান,ফসল হারিয়ে তারা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন৷এলাকার সকল কৃষকদের ফসলহানি হওয়ার পর তাদের সান্ত্বনা দেয়ারও কেউ নেই। এমপি ছাড়া কেউই তাদের খোঁজখবর রাখছেন না৷ আগামী বছর এসব হাওরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় বাঁধ নির্মাণের দাবি জানান তারা। এসময় সাংসদ মানিক ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সাথে মতবিনিময় করে পরবর্তী কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে অবহিত করেন এবং যেসব হাওরে পানি ঢুকে নাই অতিদ্রুত সেসব হাওরের ধান কাটার পরামর্শ দেন৷ এছাড়া অতি ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ত্রাণ সহায়তা দেয়ার জন্য তালিকা তৈরি করে দেয়ার নির্দেশ দেন তিনি । কৃষকদের উদ্দেশ্যে এমপি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নির্দেশে হাওরের ফসল ও মানুষ বাঁচাতে স্থায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। হাওরবাসী যেন নির্বিঘ্নে ফসল কেটে ঘরে তুলতে পারে, সেজন্য প্রধানমন্ত্রী সার্বক্ষণিক তদারকি করছেন। ২০১৭ সালে সুনামগঞ্জে ফসলহানীর পর মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী টানা ১৩মাস হাওরবাসীকে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করেছেন যা ইতিহাসে বিরল। এসময় এমপি আক্ষেপ করে বলেন, ছাতক- দোয়ারার অনেক হাওর অরক্ষিত রয়েছে। চাহিদা থাকা সত্বেও পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় এসব হাওরে বাঁধ নির্মাণ করা হয় নি। যার কারনে কয়েকটি হাওর তলিয়ে গেছে৷ এদিকে কৃষকরা যাতে দ্রুত সময়ে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজ করতে পারে এ লক্ষে সকালে ছাতক উপজেলা পরিষদ চত্বরে ৭০% ভতুর্কি মূল্যে কৃষি পণ্য বিতরণ করেন এমপি মানিক। বিকালে ছাতকের কৈতকে জেএসএ কল্যাণ ট্রাষ্টের উদ্যোগে পবিত্র রমজান মাস ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে স্বল্প আয়ের পরিবারের মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রধান অতিথি হিসাবে পুষ্টিগুন সম্পন্ন খাদ্য সামগ্রী ও বিতরণ করেন মুহিবুর রহমান মানিক এমপি।