• ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৫ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

গরু চুরির ঘটনায় আদালতে মামলা করলেন প্রতিবন্ধী হামিদ

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২২
গরু চুরির ঘটনায় আদালতে মামলা করলেন প্রতিবন্ধী হামিদ

নিজস্ব প্রতিবেদক: সুনামগঞ্জের ছাতকে এক প্রতিবন্ধীর দেড় লাখ টাকা মূল্যের তিনটি গরু হাওর থেকে চুরি করে নিয়ে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। এমন অভিযোগে সুনামগঞ্জ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন প্রতিবন্ধী আবদুল হামিদ। তিনি ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের হাইলকেয়ারী গ্রামের মৃত আরব আলীর পুত্র।

জানা যায়, প্রতিবন্ধী আবদুল হামিদ তার একই গ্রামের মৃত ওয়াব আলী ওরফে মংলা মিয়ার পুত্র সেলিম আহমদের কথায় গরু ব্যবসা শুরু করেন। গত ১০ মার্চ ২০১৯ সালে ৩০ হাজার টাকা মূল্যের একটি গরু ও এক সপ্তাহ পর ৫৫ হাজার টাকা মূল্যের আরো দু’টি গরু ক্রয় করে দেন সেলিমকে। এক বছর মেয়াদের জন্য সেলিম গরুগুলো লালন-পালন করবে এবং লভ্যাংশের টাকা অর্ধেক হারে দু’জন বন্টন করে নিবে বলে পূর্বে তাদের মধ্যে মৌখিকভাবে সাব্যস্থ হয়। কিন্তু তিন বছর অতিবাহিত হওয়ার পর চিকিৎসার টাকার প্রয়োজন দেখা দেয়ায় গরুগুলো বিক্রির জন্য আসামী সেলিমকে বললে সে সময় ক্ষেপন করতে থাকে।

গত ১৬ জানুয়ারী গরু আনতে গেলে গুরুগুলো হাওরে আছে বলে জানায় সেলিম। পরবর্তীতে তার বাড়ি থেকে গরু আনতে গেলে ক্ষুদ্ধ হয়ে আসামী সেলিম ওই প্রতিবন্ধীকে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে টানা হেছড়া করে।

বাদী জানান, সেলিম হাওর থেকে দেড় লক্ষটাকা মূল্যের তার তিনটি গরু চুরি করে বিক্রি করে ফেলেছে। বর্তমানে তিনি স্বাভাবিক অবস্থায় চলাফেরা করতে পারছেন না। সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরো সার্জারী বিভাগে ভর্তি হওয়ার জন্য চিকিৎসক পরামর্শ দিয়েছেন কিন্তু অর্থের অভাবে এবং আসামী কর্তৃক গরুগুলো চুরি করে বিক্রির কারণে ভর্তি হয়ে অপারেশন করাতে পারছেন না। অবশেষে তিনি গত ২ ফেব্রুয়ারী সুনামগঞ্জ আদালতে সিআর মোকদ্দমা নং-৩৭/২০২২ দায়ের করেন। এর প্রেক্ষিতে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)কে নির্দেশ প্রদান করেছেন আদালত।