• ১লা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ , ১৮ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১০ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

উইঘুরদের ওপর চীনের গণহত্যার প্রমাণ থাকার দাবি ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞদের

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২১
উইঘুরদের ওপর চীনের গণহত্যার প্রমাণ থাকার দাবি ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞদের

বিবিএন নিউজ ডেস্ক : সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলমান সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে চীনের গণহত্যা চালানোর বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ রয়েছে বলে দাবি করেছেন যুক্তরাজ্যের একদল বিশেষজ্ঞ। দেশটিতে সম্প্রতি প্রকাশ পাওয়া একটি আইনি মতামতে এই দাবি করা হয়েছে। বলা হয়েছে রাষ্ট্রীয় তৎপরতার মধ্য দিয়ে চীন উইঘুরদের নির্মূলের চেষ্টায় রয়েছে। এসব মানবতা বিরোধী অপরাধে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং নিজে জড়িত বলেও উল্লেখ করা হয়েছে ওই মতামতে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

গ্লোবাল লিগ্যাল অ্যাকশন নেটওয়ার্ক, ওয়ার্ল্ড উইঘুর কংগ্রেস ও উইঘুর হিউম্যান রাইটস প্রজেক্ট নামে কয়েকটি মানবাধিকার সংগঠনের উদ্যোগে যুক্তরাজ্যের বিশেষজ্ঞরা এই মতামত দিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট তথ্য-প্রমাণ ও  আইন যাচাই-বাছাই করে ১০০ পৃষ্ঠার এই আইনগত মতামত  দিয়েছেন লন্ডনের এসেক্স কোর্ট চেম্বারের একাধিক জ্যেষ্ঠ ব্যারিস্টার। তবে আদালতের রায়ের মতো এই মতামতের বাধ্যবাধকতা নেই কিন্তু এর ভিত্তিতে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া যায়।

ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞদের ওই আইনগত মতামতে বলা হয়েছে, উইঘুরদের নির্মূল করতে চীন যেসব কর্মকাণ্ড করছে, তার মধ্যে রয়েছে এই সম্প্রদায়ের সদস্যদের আটকে রাখা,  গর্ভপাত-বন্ধ্যাকরণসহ নানাভাবে নারীদের সন্তান জন্মদান রোধের ব্যবস্থা, শিশুদের জোর করে সম্প্রদায় থেকে আলাদা করে ফেলা। মতামতে বলা হয়েছে, জিনজিয়াংয়ে উইঘুরদের বিরুদ্ধে চীন সরকারের কার্যক্রম মানবতা বিরোধী এবং গণহত্যার অপরাধ বলে বিবেচিত হতে পারে।

উইঘুরদের মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ বরাবর অস্বীকার করে আসছে চীন। লন্ডনের চীনা দূতাবাসও বলেছে, পশ্চিমের চীন বিরোধী শক্তিগুলো জিনজিয়াং নিয়ে শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ মিথ্যাচার করে যাচ্ছে।(জনমত)