• ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাব নির্বাচনে জুবায়ের প্রেসিডেন্ট,তাইসির সেক্রেটারি,সালেহ ট্রেজারার নির্বাচিত

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জানুয়ারি ৩০, ২০২৪
লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাব নির্বাচনে জুবায়ের প্রেসিডেন্ট,তাইসির সেক্রেটারি,সালেহ ট্রেজারার নির্বাচিত

 

নিজস্ব প্রতিবেদক::আনন্দ অনুষ্ঠান ও ভোট উৎসবের মধ্যে গত রোববার বিলেতের গণমাধ্যমকর্মীদের সর্ববৃহৎ সংগঠন লন্ডন-বাংলা প্রেস ক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে নতুন প্রজন্মের তারুণ্যের প্রতীক মুহাম্মদ জুবায়ের সভাপতি, তাইসির মাহমুদ সেক্রেটারি ও সালেহ আহমদ ট্রেজারার পদে নির্বাচিত হয়েছেন। ইস্ট লন্ডনের ইমপ্রেশন ব্যাঙ্কুয়েটিঙ হলে অনুষ্টিত এই নির্বাচনে জুবায়ের-তাইসির-মুরাদ এলায়েন্সের প্রেসিডেন্ট, সেক্রেটারি ও ভাইস প্রেসিডেন্টসহ মোট ১২’টি এবং নাহাস-মুসলেহ-সালেহ এলায়েন্সে ট্রেজারার সহ মোট ৩ টি পদে জয়লাভ করেন।


ক্লাবের ২০২৪-২০২৫ সালের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনে প্রেসিডেণ্ট পদে ১৪১ ভোটে প্রেসক্লাবের ইতিহাসে সর্ব কনিষ্ঠ সভাপতি হিসাবে মোহাম্মদ জুবায়ের বিজয়ী হন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক সভাপতি সৈয়দ নাহাস পাশার প্রাপ্ত ভোট ১৩৯। সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেণ্ট পদে ১৯১ ভোট পেয়ে সবার প্রিয় ব্যারিস্টার তারেক চৌধুরী বিজয়ী হন।তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সিনিয়র সাংবাদিক মোস্তাক আলি বাবুল পেয়েছেন ৮৬ ভোট। ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে ১৪৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন কবি গল্পকার সাঈম চৌধুরী। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট মো: রহমত আলির প্রাপ্ত ভোট ১৩৬।


জেনারেল সেক্রেটারি পদে টানা দ্বিতীয় বারের মতো সাপ্তাহিক দেশ পত্রিকার সম্পাদক তাইসির মাহমুদ ১২৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী জনমতের
মোসলেহ আহমেদ ১০৩ ভোট আর স্বতন্ত্র প্রার্থী জিআর সোহেল পেয়েছেন ৫৭ ভোট। অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারী পদে মো. রেজাউল করিম মৃধা ১৪৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. আব্দুল কাইয়ুমের প্রাপ্ত ভোট ১৩৬। ট্রেজারার পদে ১৫৭ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় বারের মতো মো. সালেহ আহমেদ বিজয়ী হন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আব্দুল কাদির চৌধুরী মুরাদের প্রাপ্ত ভোট ১২২।

অ্যাসিসট্যান্ট ট্রেজারার পদে ১৫৬ ভোট পেয়ে চ্যানেল এসের সিনিয়র রিপোর্টার ইব্রাহিম খলিল বিজয়ী হন।তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. সারওয়ার হোসেনের প্রাপ্ত ভোট ১০৭। অর্গানাইজিং অ্যান্ড ট্রেনিং সেক্রেটারী পদে এনটিভির চীফ রিপোর্টার মো. আকরামুল হোসেন ১৬৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।তার প্রতিদ্বন্দ্বী মো. ইমরান আহমেদ পেয়েছেন ১১৩ ভোট। মিডিয়া অ্যান্ড আইটি সেক্রেটারী পদে মো. আবদুল হান্নান ১৯০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।তার প্রতিদ্বন্দ্বী মো. মাহবুব আলি খানশূরের প্রাপ্ত ভোট ৮৫।


ইভেন্টস অ্যান্ড ফ্যাসিলিটিস সেক্রেটারী পদে চ্যানেল এসের নিউজ প্রেজেন্টার রূপি আমিন ১৭৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী এস এম রহমান বেলালের প্রাপ্ত ভোট ১০২। আর পাঁচটি এক্সিকিউটিভ মেম্বার পদে সাহিদুর রহমান সোহেল ১৭৬ ভোট, ফয়সল মাহমুদ ১৭১ ভোট, মরিয়ম পলি রহমান ১৫৫ ভোট , জাকির হোসেন কয়েস ১৩৭ ভোট ও আনোয়ার শাহজাহান ১৩১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।


এছাড়া এক্সিকিউটিভ মেম্বার পদে অন্য প্রার্থীদের মধ্যে, মোহাম্মদ সোবহান ১২০ ভোট, এম ই রহমান পাক্কু ১৩১ ভোট , বাতিরুল সর্দার ৮১ ভোট, হেফাজুল করিম রকিব ১২০ ভোট এবং আনিসুর রহমান আনিস ৯৭ ভোট পান।
নির্বাচনে বাংলাদেশ কেটারার্স এসোসিয়েশনের সাবেক প্রেসিডেন্ট বজলুর রশিদ চৌধুরী এমবিই, আব্দুল আজিজ ও ব্যারিস্টার আনোয়ার বাবুল মিয়া নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন।


উল্লেখ্য, ক্লাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের পনেরটি পদের জন্য দু’টি অ্যালায়েন্সের ত্রিশ জন্য প্রার্থী এবং একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এই নির্বাচনে ক্লাবের দুইশ’ ৮৮ জন সদস্য গোঁপন ব্যালটের মাধ্যমে ভোট দিয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে আগামী দু’বছরের জন্য নির্বাচিত করার সুযোগ পান।
মানচেস্টার, বার্মিংহাম,লিভারপুল,লীডস,শেফিল্ড, নিউক্যাসলসহ যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহর থেকে আগত প্রেসক্লাব মেম্বারদের স্বতঃস্ফর্ত অংশগ্রহনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত দ্বি-বার্ষিক সভা ও নির্বাচন ক্লাবের বিদায়ী সভাপতি এমদাদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক তাইসির মাহমুদের পরিচালনায় বিগত বছরের রিপোর্ট পেশ করা হয়। পরে ক্লাবের সাধারণ সদস্যরা প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহণ করেন।
দিনব্যাপী এই সমাবেশ দুপুর থেকে শুরু হয় এবং দ্বি-বার্ষিক সভার পর বিকেল আড়াইটা থেকে বিরতিহীন ভাবে ছয়টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। তারপর ভোটগ্রহণ শেষে রাত দশটায় ফলাফল ঘোষণা করা হয়। আগামী দুবছরের জন্য নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ জুবায়ের সকলের প্রতি ধন্যবাদ জানান এবং তাঁকে ও নতুন কার্যনির্বাহি কমিটিকে সহযোগিতার জন্য সকল সাধারণ সদস্যদের প্রতি অনুরোধ জানান। অপরদিকে সন্ধ্যায় ক্লাবের আজীবন সদস্য, বাংলাদেশ হাইকমিশনার সাইয়েদা মুনা তাসনিম, লাইম হাউজ এমপি আফসানা বেগম, ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন, চেম্বার্স, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ ও বিশিষ্টজনদের নিয়ে ডিনার ও সাংস্কৃতিক পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় প্রয়াত ক্লাব মেম্বার আশরাফ আহমদ, সহ বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয় এবং তাদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয়।