• ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৭ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

পর্যটন ব্যবসার আরো প্রসার লাভ করুক তবে নীতিমালার মধ্যে থাকতে হবে:সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত মে ১৪, ২০২৩
পর্যটন ব্যবসার আরো প্রসার লাভ করুক তবে নীতিমালার মধ্যে থাকতে হবে:সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক
লতিফুর রহমান রাজু,সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী বলেন, সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকা পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে ইতিমধ্যেই বেশ সুনাম অর্জন করেছে।  এজন্যই দেশ বিদেশের শত শত পর্যটক এখানে আসেন।  পর্যটক দের সুযোগ সুবিধার জন্য পর্যটন করপোরেশন ইতিমধ্যেই কাজ করছে। রাস্তাঘাট সহ আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্পন্ন হোটেল মোটেল নির্মাণ সহ অন্যান্য কাজ করা হবে। পর্যটন ব্যবসার আরও প্রসার লাভ করুক সেটা সবাই চাই। তবে এখানকার পর্যটক বাহী নৌকা ও হাউস বোট গুলোকে রেজিস্ট্রেশন সহ নিয়ম নীতির আওতায় নিয়ে আসা হবে।  ইতিমধ্যেই আমরা একটি খসড়া নীতিমালা তৈরি করেছি।  পরবর্তীতে সকল পক্ষের সাথে বসে চূড়ান্ত করা হবে। বিশ্ব ঐতিহ্য রামসার সাইট টাংগুয়ার হাওর ও আশপাশের জীব বৈচিত্র্য বাচিঁয়েই করতে হবে। লোকাল মানুষের মতামত এবং তাদের কর্ম সংস্থান কে ও অগ্রাধিকার দিতে।  সমিতি গঠন করে স্হানীয় প্রশাসনের সাথে সমন্বিত ভাবে কাজ করতে হবে।  ঘাট নির্মাণ সহ অন্যান্য কর্মকাণ্ড করার পরামর্শ দেন।
শনিবার সকাল ১১ টায় সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন  কক্ষে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন আয়োজিত সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার টাংগুয়ার হাওরের চলাচল কারী পর্যটক বাহী নৌকা ও হাউস বোট মালিক ও শ্রমিক ও অন্যান্য শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে পর্যটন সংক্রান্ত মত বিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক শেখ মহি উদ্দিন আহমেদ এর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ এহসান শাহ। বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ইউএনও সালমা পারভীন, তাহিরপুর উপজেলার ইউএনও সুপ্রভাত চাকমা, সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্ম কর্তা ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী, তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্ম কর্তা সৈয়দ ইফতেখার হোসেন, সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি কাশ্মীর রেজা, দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আলী আহমদ মুরাদ, সহ বিভিন্ন হাওস বোটের মালিক শ্রমিক সহ অন্যান্য নানা পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
পুলিশ সুপার মোহাম্মদ এহসান শাহ বলেন, পর্যটকরা যাতে আইন শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি না ঘটান নীতিমালার ভেতর চলেন তাই চাই। মাদক সহ সকল অনৈতিক কর্ম কান্ড করা যাবেনা। লোকাল থানাকে অবহিত করতে হবে। ট্যুরিস্ট পুলিশের কাজ চলমান আছে খুব শীঘ্রই সুনামগঞ্জ চালু হবে।  বদনাম হবে এমন কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে।  না হয় আমাদের পর্যটন শিল্পের সম্পর্কে বিরুপ ধারনার সৃষ্টি হবে।