• ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১লা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি

বিসিএ’র প্রেসিডেন্ট আব্দুল মুনিম বৃটেনের বাকিংহাম রাজপ্রাসাদ থেকে OBE সম্মাননা পদক পেলেন

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জুন ৫, ২০২২
বিসিএ’র প্রেসিডেন্ট আব্দুল মুনিম বৃটেনের বাকিংহাম রাজপ্রাসাদ থেকে OBE সম্মাননা পদক পেলেন

বিবিএন ডেস্ক;BCA এর প্রেসিডেন্ট আব্দুল মুনিম বৃটেনের বাকিংহাম রাজপ্রাসাদ থেকে OBE সম্মাননা পদক পেয়েছেন।

২রা জুন ছিলো বৃটেনের রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের শাসনের সত্তর বছর পূর্তি ও ৯৬ তম জন্মদিন। বৃটেনে বসবাসরত বাংলাদেশী কমিউনিটির উন্নয়নে বিশেষ অবদানের জন্য মোহাম্মদ আব্দুল মুনিমকে (এম এ মুনিম) রাণী এলিজাবেথ সম্মাননা প্রদান করা হয়।

বৃটেনের রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের শাসনের সত্তর বছর পূর্তি ও ৯৬তম জন্মদিন উপলক্ষে বৃটেনসহ সংশ্লিষ্ট দেশগুলিতে ‘প্ল্যাটিনাম জুবিলি’ পালিত হচ্ছে। ২রা জুন জন্মদিন উপলক্ষে এ বছরের এই দিনটি বৃটিশদের জন্য ছিল বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। এ দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে বৃটেনে বসবাসরত বিভিন্ন গুণি ব্যক্তিবর্গদেরকে রাণী এলিজাবেথ সম্মাননা প্রদান করেন। তাদের মধ্যে
মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার কৃতি সন্তান বাংলাদেশ ক্যাটারার্স অ্যাসোসিয়েশন ইউকে-এর সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুল মুনিম কমিউনিটির উন্নয়নে বিশেষ অবদানের জন্য পেলেন OBE পদক।

মোহাম্মদ আব্দুল মুনিম বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়শন ইউকে- এর সম্মানিত সভাপতি, জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইউকের ভাইস প্রেসিডেন্টসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে জড়িত। মোঃ আব্দুল মুনিম এ পদক পাওয়ায় দেশ-বিদেশের বিভিন্ন গুনি ব্যক্তিবর্গ ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

এক বৃবিতে মোহাম্মদ মুনিম বলেন, ‘আমি দীর্ঘদিন ধরে কমিউনিটির জন্য বিশেষ করে ক্যাটারার্স এসোসিয়শনের জন্য যে কাজ করে যাচ্ছি তারই স্বীকৃতি হিসাবে এ পদক পেয়েছি বলে আমি গর্বিত। আমি ক্যাটারার্স এসোসিয়শনের সকল সদস্য কর্মকর্তার কাছে কাজ করার সুযোগ দানের জন্য কৃতজ্ঞ।’ কুলাউড়ার সন্তান হিসাবে এমন সম্মানীত পদক পাওয়ায় তাঁর অনুভূতি জানতে চাইলে বলেন, ‘আমি তো কুলাউড়ারই একজন মানুষ, বাংলাদেশের মানুষ, তাই আমার এ সম্মান প্রাপ্তি, কুলাউড়ার সকল মানুষের জন্যই সম্মান বয়ে এনেছে বলে আমি বিশ্বাস করি।’
মোহাম্মদ মুনিমের OBE খেতাব প্রাপ্তিতে অভিনন্দন জানিয়েছেন BCA এর সাবেক প্রেসিডেন্ট পাশা খন্দকার এম বি ই, বজলুর রশিদ এম বি ই, জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইউকের প্রেসিডেন্ট মুহিবুর রহমান মুহিব, সেক্রেটারি আমিনুল হক জিল্লু, প্রেস এন্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারি মো: আব্দুল মুনিম জাহেদী ক্যারল, ইস্টহ্যান্ডস ইন্টারন্যাশনাল চ্যারিটির চেয়ারম্যান বিশিষ্ট ক্রীড়াবিদ সাংবাদিক নবাব উদ্দিন, বাংলা কাগজের চেয়ারম্যান আজাদ আবুল কালাম, সাধারণ সম্পাদক খছরু মোহাম্মদ খান, নির্বাহী সম্পাদক রিয়াদ আহাদ এবং মৌলবীবাজার জেলা জনকল্যাণ ট্রাষ্ট মিডল্যান্ডস-এর সহসভাপতি আব্দুল কাদির আবুল।
উল্লেখ্য যে, একসময়ের সিলেটের তুখোড় ছাত্র নেতা বর্তমান বিসিএ সভাপতি এম এ মুনিম ১৯৫৮ সালে মৌলভী বাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার কামার কান্দি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মরহুম আলহাজ্ব মো: আবদুল বারী ছিলেনএকজন প্রখ্যাত ঠিকাদার ও সফল ব্যবসায়ী।
শিক্ষা জীবনে এম এ মুনিম কুলাউড়া এনসি হাই স্কুল থেকে ১৯৭৩ সালে প্রথম বিভাগে এসএসসি পাশ করেন। ৭৪ সালে সিলেট এমসি কলেজে ভর্তি হন এবং সেখানেই উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগে (অনার্স) অধ্যয়ন করেন।
এম এ মুনিম সিলেট সরকারি কলেজে (এমসি) দু’বার ছাত্রলীগের সভাপতি এবং দু’বার বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। তিনি তখন শিক্ষা আন্দোলন বিশেষ করে সিলেটে একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দাবিতে প্রচার কর্মকান্ড পরিচালনা করেন। সিলেট বিভাগ প্রতিষ্ঠার আন্দোলনেও তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।
১৯৯৯ সালে মোহাম্মদ মুনিম বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশনের সাউথ ইস্ট রিজিওনের সভাপতি নির্বাচিত হন। ২০০৪ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত তিনি বিসিএ কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং ২০০৭ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত অর্গানাইজিং সেক্রেটারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১২ সালে বিসিএর সেক্রেটারি জেনারেল নির্বাচিত হন। ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিনি অত্যন্ত যোগ্যতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৭ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত নির্বাহী সদস্য এবং ২০১৯ থেকে সভাপতি হিসেবে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন।