• ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১লা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি

এক সপ্তাহ পর সুরমার পানি বিপদসীমার নিচে নামলেও জলাবদ্ধতা দুর হয়নি

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত মে ২২, ২০২২
এক সপ্তাহ পর সুরমার পানি বিপদসীমার নিচে নামলেও জলাবদ্ধতা দুর হয়নি
লতিফুর রহমান রাজু, সুনামগঞ্জ : গত কদিনের

 পাহাড়ি ঢল ও বৃষ্টিতে টানা ৬ দিন সুনামগঞ্জের সুরমা নদী বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও এক সপ্তাহ পর পানি বিপদসীমার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।  কিন্ত পানি কমলেও সুনামগঞ্জ পৌর এলাকার জলাবদ্ধতা দুর হয়নি। ফলে মানুষের জীবন যাপন চরম দুর্ভোগের মধ্যেই চলছে।

শনিবার সকাল থেকে সুনামগঞ্জের সুরমা বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে আর সেটিকে বন্যা পরিস্থিতি উন্নতি বলে জানিয়েছে পাউবো। তবে নদীর পানি কমে গেলেও শহরের বিভিন্ন এলাকার পানি স্থির থেকে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। যার কারণে ঘরের মধ্যেই দিন কাটছে পৌর শহরের মানুষদের।

সুনামগঞ্জ পৌর শহরের নবী নগর এলাকার রত্না বেগম বলেন,   পানি আইছে আর এই পানি প্রতিবছর আয় কিন্তু এবার এতো তাড়াতাড়ি আইয়া আমরা যা গৃহস্থি করছিলাম সব পানিতে ভিজি গেছে, শুকনা ধান এই পানিত আবার ভিজছে।

শান্তি বাগ আবাসিক এলাকার  বাসিন্দ  সুবল দাস বলেন, পানি কমতেছে কিন্তু খুব ধীর গতিতে আর পানির জন্য এলাকাগুলোতে একটা বাজে গন্ধ ছড়াচ্ছে যা খুব কষ্ট হচ্ছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহি প্রকৌশলী মোঃ শামসুদ্দোহা  জানান আবহাওয়া ভালো হওয়ায় নদীর পানি কমেছে বর্তমানে সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে তাই বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। তবে ছাতকে এখনও সুরমার পানি বিপদসীমার ৯৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত বলেন, বন্যায় পৌর শহরের অনেক আবাসিক এলাকায় পানি উঠেছে আমরা তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার পৌছে দিচ্ছি এবং তাদের খাবার পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেটও সাথে দেয়া হচ্ছে।

সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ করা হচ্ছে পর্যাপ্ত ত্রাণ মজুত আছে।