• ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৩ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

বোরো ফসল রক্ষায় স্থায়ী সমাধানের প্রতিশ্রুতি পানি সম্পদ উপ মন্ত্রীর

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত এপ্রিল ৮, ২০২২
বোরো ফসল রক্ষায় স্থায়ী সমাধানের প্রতিশ্রুতি পানি সম্পদ উপ মন্ত্রীর

লতিফুর  রহমান রাজু ,সুনামগঞ্জ ::পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, ‘হাওরের বাঁধের কাজে অনিয়ম নিয়ে তদন্ত করবে মন্ত্রণালয়। যারাই অনিয়মের সাথে জড়িত থাকে, তাদের ছাড় দেয়া হবে না। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের তালিকা করে ত্রাণ কার্যক্রম শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। ত্রাণ প্রতিমন্ত্রীর সাথে আমার কথা হয়েছে। কৃষকদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ পক্ষে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করবো।
শুক্রবার সকাল ৯টায় সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার  চাপতির হাওরের ভেঙে যাওয়া বৈশাখী বাঁধ পরিদর্শনে এসে উপমন্ত্রী এসব কথা বলেন। গত বুধবার রাতে বাঁধটি ভেঙে চাপতি হাওরের প্রায় ৫হাজার হেক্টর বোরো জমির কাঁচা ধান তলিয়ে যায়।
উপমন্ত্রী বলেন, এ বছরটা কোনরকমে ট্যাকল দিয়ে আগামী বছর থেকে আমাদের অভিজ্ঞতার আলোকে নতুনভাবে ভাববো। ৫৩৫ কিলোমিটার বাঁধ। আপনারাই বলেছেন, ‘একেক এলাকার মাটি একেক রকম। একেক এলাকার সমস্যা একেক ধরনের। ভিন্নতা আছে। সেই ভিন্নতার আলোকে আমাদের এক্সপার্ট যারা আছেন, প্রকৌশলী আছেন। বিশেষ করে লোকাল যারা আছেন, তাদের মতামত নিয়ে আমরা একটা স্থায়ী সমাধান করবো।
চাপতির হাওরের স্লুইসগেট থেকে কলিয়ারকাপন বাজার পর্যন্ত চার কিলোমিটার কম্পার্টমেন্টাল বাঁধ আগামী প্রকল্পে থাকবে উল্লেখ করে শামীম বলেন, সুরমা নদী থেকে শুরু করে সকল নদীগুলোকে ড্রেজিং করে স্বাভাবিক প্রবাহ ঠিক করা হবে। ২০১৭ সালের পর এবার কয়েকটি হাওরে ফসল রক্ষা বাঁধ ভেঙে বোরো ফসল তলিয়ে গেছে। প্রতি বছর সরকার হাওরের জন্য কোটি টাকা ব্যয় করছেন। আমরা হাওরের জন্য স্থায়ী প্রকল্প গ্রহণ করেছি। স্থায়ী প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে হাওরের মানুষজন হাসি মুখে বোরো ফসল গোলায় তুলতে পারবে।আমরা সে চেষ্টায় আছি।’
উপমন্ত্রী জানান, সুনামগঞ্জ পাউবোর সকল কর্মকর্তা – কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। প্রধান প্রকৌশলী সিলেটের পরিবর্তে আগামী একমাস সুনামগঞ্জে অফিস করবেন। তিনি বলেন, কর্মকর্তার পরিমাণ ইতিমধ্যে আমরা বাড়িয়ে দিয়েছি। সুপারিন্টেন্ডেন্ট ইঞ্জিনিয়ারকে প্রধান সমন্বয়কারী করে একেকটা এলাকায় একেক জনকে দায়িত্ব দিয়ে টু দ্যা পয়েন্টে কাজ করার ব্যবস্থা করেছি। আপনারা আমাদের সহযোগিতা করুন। পরস্পর পরস্পরের মধ্যে কাঁদা ছোড়াছুড়ি না করে বিপদে ধৈর্য্য ধারণ করতে হবে। মহান আল্লাহ বলেছেন, ‘তোমরা ধৈর্য্য ধরো, আমি ধৈর্য্য ধারণকারীদের সাথে আছি।
এরপর বেলা সাড়ে ১০টার দিকে স্থানীয় এমপির বাসভবনে যান উপমন্ত্রী। ড. জয়া সেনগুপ্তা এমপিসহ দলের নেতাকর্মীদের সাথে কিছুসময় মতবিনিময় করেন এবং প্রয়াত সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সমাধিস্থলে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।
পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক মো: ফজলুর রশিদ, পাউবোর উত্তর-পূর্বাঞ্চল জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী এসএম শহীদুল ইসলাম, সিলেট সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রবীর কুমার গোস্বামী, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো: জাহাঙ্গীর হোসেন, পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী সামসুদ্দোহা, ইউএনও মাহমুদুর রহমান মামুন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিষ্টার এম এনামুল কবীর ইমন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দিরাই সার্কেল) আবু সুফিয়ান, ওসি সাইফুল আলম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আলতাব উদ্দিন, বর্তমান কমিটির সহ সভাপতি এড. সোহেল আহমদ, সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ রায়, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. অভিরাম তালুকদার, পৌর মেয়র বিশ্বজিৎ রায়, আওয়ামী লীগ নেতা আসাদ উল্লা, কামাল উদ্দিন প্রমুখ।