• ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৫ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

ব্যারিষ্টার মোহাম্মদ ইয়াহইয়ার মৃত্যুতে কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের শোক

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত এপ্রিল ১, ২০২২
ব্যারিষ্টার মোহাম্মদ ইয়াহইয়ার মৃত্যুতে কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের শোক

এস হোসাইন ব্রাডফোর্ডঃ  সুনামগঞ্জের কৃতি সন্তান, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ব্যারিস্টার মোহাম্মদ ইয়াহইয়ার মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন, সুনামগঞ্জ জেলা এসোসিয়েশন ইউকের সভাপতি হাজী রফিক মিয়া, সেক্রেটারি ছানাওর আলি কয়েছ, গ্রেটার সিলেট কাউন্সিল ইউকের সাবেক চেয়ারম্যান মনসব আলি জেপি, ছাতক উপজেলা এডুকেশন ট্রাস্ট’র আহবায়ক আলহাজ্ব মকদ্দুস আলী‌ ও যুগ্ন আহবায়ক ব্যারিস্টার শাহ মিছবাউর রহমান,

গ্রেটার সিলেট কাউন্সিল ইউকের সেন্টাল সেক্রেটারি মোহাম্মদ খছরু খান, সিচাপইড় ইউনিয়ন উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি সাবেক পুলিশ ইন্সপেক্টর আহবাব মিয়া ও সেক্রেটারি তাহের উদ্দিন আজিজ, ছাতক এডুকেশন ট্রাস্ট ইউকের প্রেসিডেন্ট নুরুল ইসলাম এমবিই, মুক্তবাংলা ফাউন্ডেশন ইউকের চেয়ারম্যান এবং এসওএস সভাপতি সাংবাদিক সারওয়ার হোসেইন , ছাতক ইসলামিক সোসাইটি ইউকের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ লোকমান আহমদ ও সেক্রেটারি ইমদাদুল হক শাহীন,
বিসিএ সেন্ট্রাল সেক্রেটারি মিটু চৌধুরী, লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সহ-কোষাধ্যক্ষ সাংবাদিক এম এ কাইয়ুম, দক্ষিণ ছাতক উপজেলা বাস্তবায়নের জয়েন্ট কনভেনার এডভোকেট আমির‌ উদ্দিন ও মজির উদ্দিন, ছাতক যুব সংস্থা ইউকের সভাপতি জয়নুল আবদিন প্রমূখ।

এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দরা মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

প্রসঙ্গত, ব্যারিস্টার ইয়াহইয়া গত ২৬শে মার্চ শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় যুক্তরাজ্যের লন্ডন শহরের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
মরহুমের জানাজার নামাজ ২৮শে মার্চ সোমবার ইস্ট লন্ডন জামে মসজিদে শত শত মানুষের উপস্থিতিতে সম্পন্ন হয় ‌। তার জানাজার নামাজে বিভিন্ন রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, সমাজকর্মী ও ধর্মীয় সংগঠনের নেতাকর্মীসহ কমিউনিটির সর্বস্তরের জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বৎসর। তিনি স্ত্রী, এক পুত্র, এক কন্যা ও নাতী-নাতনীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ও সাদা মনের মানুষ ব্যারিষ্টার ইয়াহিয়া ১৯৪০সালে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার বাদে ঝিগলী গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৮৬ সালে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে সুনামগঞ্জ-৫ আসন থেকে প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। পরে একই আসন থেকে ১৯৯১ এবং ১৯৯৬ সালেও জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৫ থেকে নির্বাচন করেছেন।