• ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৮ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

ইস্ট লন্ডনে ৭ তলা থেকে পড়ে ১৪ বছরের কিশোর নিহত

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত মার্চ ২৭, ২০২২
ইস্ট লন্ডনে ৭ তলা থেকে পড়ে ১৪ বছরের কিশোর নিহত

বিবিএন ডেস্ক: আকাশের তারা গুনতে চেয়েছিলো, হতে চেয়েছিলো জ্যোর্তিবিদ। কিন্তু ১৪ বছরের মার্কেল আজ নিজেই আকাশের তারা। ইস্ট লন্ডনের বো এলাকার একটি উচু বিল্ডিংয়ের ৭ তলা থেকে পরে নিহত হয়েছে ১৪ বছরের মার্কেল ব্রুশাল।

ঘটনার বিস্তারিত সম্পর্কে জানা যায়, মার্কেল ১৯ মার্চ শনিবার সন্ধ্যায় বো রোডের স্নিফোড নামের ১৯ তলা বিল্ডিংয়ের সাত তলা থেকে পরে নিহত হয়।

বিষয়টি নিয়ে মার্কেলের মা ক্যারোলিন ব্রুশাল জানান, তিনি তার সন্তানদের নিয়ে নিউহ্যাম এলাকায় থাকেন। কিন্তু সেই দিন তার সন্তানরা তাদের গ্রান্ড প্যারেন্টসদের সাথে দেখা করতে বো রোডের ওই ফ্লাটে যায়।

ঘটনা সম্পর্কে মা ক্যারোলিন জানান, মার্কেল ফ্লাটের বারান্দায় বসেছিলো। এই সময় তার ১১ বছরের ভাই ভিনসেন্ট মার্কেল কোন ফ্লেভারের আইসক্রিম খাবে তা জানতে বারান্দায় আসে।  সে তার ভাইকে সেখানে পায়নি। পরবর্তীতে সে আবিষ্কার করে কিশোর মার্কেল সাত তলা থেকে নিচে পরে গিয়েছে।

এই সময় মার্কেলের ভাই, তাদের গ্রান্ড প্যারেন্টস ও প্যারামেডিকসরা তাৎক্ষনিক মার্কেলকে বাঁচাতে সব ধরনের চেষ্টা করলেও ঘটনাস্থলেই এই কিশোরের মৃত্যু হয়।

বুদ্ধিমান ও সবার দেখাশুনা করা মার্কেল বড় হয়ে জ্যোর্তিবিদ হতে চেয়েছিলো। আকাশের তারা নিয়ে গবেষণার কারনেই হয়তো তার মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করছেন মা ক্যারোলিন। ক্যারোলিন জানান, শনিবারের আকাশ ছিলো অনেক উজ্জ্বল। হয়তো তারা দেখতে গিয়েই তার সন্তান নিচে পরে গিয়েছে।

মা ক্যারোলিন রয়েল লন্ডন হাসপাতালে মিডওয়াইফের কাজ করেন। তিনি জানান, তার দুই সন্তান ওই দিন ছুটি কাটাতে তাদের গ্রান্ড প্যারেন্টেসের বাসায় গিয়েছিলো। বারান্দা থেকে পরে যাওয়ার আগে পরিবারের অন্য সদস্যদের সাথে মার্কেল পিং পং খেলেছে। যেদিন সে বেড়াতে গ্রান্ড প্যারেন্টের বাসায় যাচ্ছিল গাড়িতে বসে গুন গুন করে গান করছিলো আর বিকেলে কি কি করবে তার পরিকল্পনা করছিলো।

মার্কেলের মা জানান, দুই ভাই ফ্লাটটির লিভিং রুমে বসে আনন্দ করছিলো। এই সময় তারা আইসক্রিম খাওয়ার স্বিদ্ধান্ত নেয়। ছোট ভাই আইসক্রিম আনতে অন্য রুমে যাওয়ার দুই মিনিট পর আবার ফিরে আসে।  ভাই কোন ফ্লেভারের আইসক্রিম খাবে তা জানতে !  কিন্তু সেই সময় ছোট ভাই , বড় ভাই মার্কেলকে রুমে দেখতে না পেলে ব্যালকোনি দিয় নিচের দিকে তাকায়। পরক্ষনে সি চিৎকার করে জানায় মার্কেল নিচে পরে গিয়েছে।

মা ক্যারোলিন জানান, মার্কেলের মৃত্যুতে তাদের পুরো পরিবার ভেঙে পরেছে। এমন মৃত্যু কখনও কাম্য নয়।