• ১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ২রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৬ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢলের পানিতে সুনামগঞ্জের নীচু এলাকা প্লাবিত

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত আগস্ট ১৪, ২০২১
বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢলের পানিতে সুনামগঞ্জের নীচু এলাকা প্লাবিত
লতিফুর রহমান রাজু, সুনামগঞ্জ; টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানিতে সুনামগঞ্জের কয়েকটি উপজেলায় হঠাৎ বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। টানা বর্ষনে তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়কপথ পানিতে তলিয়ে গেছে। জেলা শহরের সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় দিশেহারা মানুষ।
তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়কের তিনটি অংশ নীচু হওয়ার কারণে প্রতি বছরই অল্প বৃষ্টিপাতে পানিতে তলিয়ে যায়। ফলে ভোগান্তিতে পড়তে হয় উপজেলাবাসীর। এসময় জেলা শহরে যাতায়াতের জন্য তিনটি জায়গায় প্রবল স্রোতের কারণে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অতিরিক্ত সময় ও টাকা খরচ করে নৌকা দিয়ে পার হয়ে জেলা শহরে যেতে হয়।

গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ক্রমাগত বৃষ্টিপাতের ফলে পানি বাড়তে থাকে যা এখনো পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে। তাহিরপুরের আনোয়ারপুর বাজার সংলগ্ন ব্রিজের সম্মুখের অংশসহ বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার দুর্গাপুর ও বাঘমারা অংশটি পানিতে ডুবে যাওয়ায় সুনামগঞ্জের-তাহিরপুর উপজেলার যোগাযোগ বিছিন্ন হয়ে পড়েছে বলে জানায় তাহিরপুর উপজেলাবাসী।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, সুনামগঞ্জ জেলাসহ সীমান্তের ওপাড়ে ক্রমাগত বৃষ্টি হওয়ায় সুরমা নদীর পানি বাড়ছে। যা বর্তমানে বিপদসীমার ২৫ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকলে বন্যার অশঙ্কাও রয়েছে বলে জানায় তারা।
আনোয়ারপুর বাজারের ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম জানান, টানা বর্ষনের কারণে ও ভারতের মেঘালয় রাজ্য থেকে যাদুকাটা নদী হয়ে রক্তি নদী দিয়ে পানি প্রবল বেগে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে যাদুকাটা নদীর ফেরি পারাপার বন্ধ রয়েছে।
অপরদিকে রাস্তার কয়েকটি অংশ পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় সব ধরনের যানবাহন চলাচলও বন্ধ রয়েছে। সুনামগঞ্জ সদরে যাওয়ার জন্য রওনা হয়েও অবস্থা প্রতিকুল হওয়ায় তাহিরপুরে ফিরে এসেছি।
তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল বলেন, টানা বৃষ্টিপাতে উপজেলার নদ নদী ও নিম্নাঞ্চলে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। জেলা শহরে যোগাযোগের রাস্তাটির কিছু অংশ পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় সুনামগঞ্জের সাথে তাহিরপুর উপজেলার সড়ক যোগাযোগ বিছিন্ন হয়ে গেছে।