• ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৪ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

ছাতা বিড়ম্বনায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী (ভিডিওসহ)

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জুলাই ৩১, ২০২১
ছাতা বিড়ম্বনায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী (ভিডিওসহ)

 

 

বিবিএন ডেস্ক:  ছাতা নিয়ে বিশ্ববাসীর সামনে এমনই এক বিড়ম্বনায় পড়েছেন হয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। আর সামান্য এক ছাতার কবলে খোদ ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে নাকাল হতে দেখে নেটিজেনরা হাসি থামাতেই পারছেন না। দায়িত্বরত অবস্থায় নিহত পুলিশ কর্মকর্তাদের স্মরণে একটি স্মৃতিসৌধের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে।

তিনি বিশ্বের অন্যতম ক্ষমতাধর ব্যক্তি হতে পারেন। কিন্তু সবকিছু যে সবসময় ঠিকঠাক মতো চলতেই হবে এমন তো কোনো কথা নেই। খারাপ দিন তো যে কারোই আসতে পারে। আর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এই যুগে যদি কোনো বিশ্বনেতা কোনো আজব বিড়াম্বনার কবলে পড়েন, বিশ্বজুড়ে তো সেটার চর্চা হতেই পারে।

ভাইরাল ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, ঝড়ো বাতাস আর বৃষ্টির মধ্যে খোলা জায়গায় প্রিন্স চার্লসসহ কয়েকজনের সাথে বসে আসেন বরিস জনসন। প্রিন্স চার্লসের মাথায় তখন ছাতা ছিল। বরিস জনসনও তার হাতে থাকা ছাতাটি খোলার চেষ্টা করেন। প্রথমে তো ছাতাটি খুলতেই চাইছিল না। ছাতা খোলার পর পাশের স্বরাষ্ট্র সচিব প্রীতি প্যাটেল, যিনি ছাতা ছাড়াই বসে ছিলেন, তাকে ছাতা দিতে চান বরিস জনসন। প্রীতি ছাতা নিতে অস্বীকৃতি জানান। এদিকে ওই ভিডিও নেটমাধ্যমে প্রচুর হাস্যরসের সৃষ্টি করেছে। সরকার প্রধানমন্ত্রীকে আরেকটি ছাতা কিনে দেবে কী না জানতে চেয়েছেন একজন নেটিজেন। আরেকজন নেটিজেন লিখেছেন, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ছাতা সামলাতে একদমই আনাড়ি।

এ সময় ছাতাটি আবার বন্ধ হয়ে যায়। পরে ছাতাটি ফের খুললে বাতাসের কারণে তা উল্টে যায়। বরিস জনসনকে বারবার ছাতা বিড়াম্বনায় পড়তে দেখে হাসি ফুটে উঠে গম্ভীর প্রিন্স চার্লসের মুখে। হেসে উঠেন পাশে থাকা অন্যরা। পরে অবশ্য ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে হার স্বীকার করে ছাতাটি। ছাতাটিকে বাগে এনে সোজা করে মাথার উপর মেলে রাখতে সক্ষম হন তিনি।(শীর্ষবিন্দু)