• ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১২ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

ইংল্যান্ডে ১৭১ জন গর্ভবতী নারী করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জুলাই ৩০, ২০২১
ইংল্যান্ডে ১৭১ জন গর্ভবতী নারী করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি

বিবিএন ডেস্ক:ইংল্যান্ডে  গত তিন মাসে ১৭১ জন গর্ভবতী নারী কোভিডে আক্রান্ত হয়ে গুরুতর অসুস্থ  অবস্থায় দেশিটির বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। যাদের মধ্যে ৯৮ শতাংশই টিকা গ্রহন করেন নি। বাকি ২ শতাংশ টিকার এক ডোজ গ্রহন করেছেন। তাই গর্ভবতী নারী যারা টিকা গ্রহন করেননি তাদের টিকা দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছেন ইংল্যান্ডের চিফ মিডওয়াইফ জ্যাকলিক ডাল্কলে।

ইংল্যান্ড অবস্টেট্রিক সার্ভাইলেন্স ডাটার দেওয়া তথ্য মতে, দেশটিতে কোভিডে আক্রান্ত হয়ে যেসব গর্ভবতী নারী হাসাপাতালে ভর্তি হয়েছেন তাদের মধ্যে প্রতি তিন জনের একজন নিউমনিয়ায় ভুগছেন। আর সাত জনের একজন আইসিউতে রয়েছেন। অণ্যদিকে হাসপালে ভর্তি গর্ভবতী মায়েদের প্রতি পাঁচ জনের একজন প্রি মেচুওর সন্তান জন্ম দিচ্ছেন।

পাবলিক হেলথ অফ ইংল্যান্ডের দেওয়া তথ্যমতে, বর্তমনে দেশটিতে গর্ভবতী নারীদের মধ্যে ৫১ হাজার ৭২৪ জন নারী টিকার প্রথম ডোজ গ্রহন করেছেন। আর ২০ হাজার ৬৪৮ জন টিকার দুই ডোজই গ্রহন করেছেন।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, বর্তমানে ৬ লাখ ৬৫ হাজার নারী ২০২০ থেকে ২১ সালে গর্ভবতী হয়েছেন। যাদের মধ্যে বেশিরভাগই টিকা গ্রহন করেন নি।

চলতি বছরের মধ্য এপ্রিলে দেশটিতে গর্ভবতী মায়েদের ফাইজার ও মর্ডানার টিকা দেওয়ার জন্য স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে অনুরোধ করা হয়েছিলো।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, এপ্রিল থেকে গর্ভবতী নারীদের টিকার জন্য ডাকা হলেও তাদের টিকার ব্যপারে আগ্রহ কম। তাই যারা এখনও টিকা গ্রহন করেন নাই তাদের টিকার দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

গত ১৮ ই জুলাই ছেলে সন্তান জন্ম দিয়েছে ক্লেয়ার নামের একজন নারী। কিন্তু সন্তান জন্ম দেওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত নিজ সন্তানকে দেখতে বা ছুতে পারেন নি তিনি। মেট্রোর সাথে এক স্বাক্ষাতকারে তিনি জানান, তার করোনা  পজিটিভ। টিকা না দেওয়ার কারনে তাকে এতোটা ভোগান্তিতে পরতে হয়েছে। তাই সব গর্ভবতী মায়েদের টিকা দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন তিনি।