• ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৪ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

সুনামগঞ্জে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জুন ১৮, ২০২১
সুনামগঞ্জে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং

লতিফুর রহমান রাজু সুনামগঞ্জ; মুজিবর্বষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে দ্বীতিয় পর্যায়ে জমিসহ ৭৬ টি ঘর(গৃহ) প্রদান প্রসঙ্গে প্রেস কনফারেন্স অনুষ্টিত হয়।

গতকাল ( ১৮ জুন শুক্রবার) দুপুরে তাহিরপুর উপজেলার চালিয়ারঘাট মৌজার উত্তর বাদাঘাট ও উত্তর বড়দল ইউনিয়নের মধ্যবর্তী মানিগাঁও এলাকায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে জেলা ও উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে মতবিনিময় করেছেন সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো: জাহাঙ্গীর হোসেন।


এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব) মো: জসিম উদ্দিন, তাহিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল, মাহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খালেদা বেগম, উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মো: রায়হান কবির, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ তরফদার, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি হাজী আবুল হোসেন খাঁন, সহ সভাপতি হাজী মোশারফ হোসেন , সাধারণ সম্পাদক অমল কান্তি কর, যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর খোকন, বড়দল উত্তর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবুল কাশেম, সাবেক চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন, বাদাঘাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আহবায়ক অধ্যক্ষ জুনাব আলী, আওয়ামীলীগ নেতা মুহিবুর রহমান চৌধুরী প্রমুখ।

এ সময় মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদেও এই জেলায় ৩ হাজার ৮ টি ঘর উপহার দিয়েছে। ইতি মধ্যেই ওই ঘর গুলোর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এ বছরই ২৩ শে জানুয়ারী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সেই ঘর গুলো উপকার ভোগীদের কাছে পৌছে দিয়েছেন। এবং দ্বীতিয় পর্যায়ে আরও ৩৯০৮ টি ঘর নির্মাণ কর্যক্রম চলছে। এবং আগামী ২০ জুন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সেই ঘর গুলো উদ্ভোধন করবেন। সেই সাথে সারাদেশে মোট ৫৪ হাজার ঘর উদ্ভোধন করবেন। এর মধ্যে আমাদের সুনামগঞ্জ জেলায় ২০৯ টি ঘর আছে। এবং এই ২০৯টি ঘরের মধ্যে আজ আমি যেখানে দাড়িয়ে আছি জেলার তাহিরপুর উপজেলার মেঘালয়ের পাদদেশে সৌন্দর্যের লীলাভূমি যাদুকাটা নদীর তীরে ৭৬ টি ঘর প্রস্তুত আছে। আমি সরেজমিনে এসে দেখলাম যে ওই ৭৬টি ঘরের নির্মাণ কাজ ভালোভাবেই সম্পন্ন করা হয়ে। আগামীকাল মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্ভোধনের মাধ্যেমে উপকার ভোগীদেও কাছে হস্তান্তর করা হবে। উপকার ভোগীরা এই ঘর পেয়ে আনন্দে আত্ন্যহার এবং তার প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া করছেন আল্লাহ যেন প্রধানমন্ত্রীকে সুস্থ রাখেন ও নেক হায়ত দান করেন।