• ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৪ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

ডাউনিং স্ট্রিটের ফ্ল্যাট নিয়ে বিতর্কে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত এপ্রিল ২৭, ২০২১
ডাউনিং স্ট্রিটের ফ্ল্যাট নিয়ে বিতর্কে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

বিবিএন নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন তার ডাউনিং স্ট্রিটের ফ্ল্যাট সংস্কারের বিষয়ে বিতর্কের কেন্দ্র বিন্দুতে এসেছেন। তিনি ফ্ল্যাটটি সংস্কারের জন্য অর্থ কোথা থেকে পেয়েছেন তা প্রকাশ করার জন্য চাপের মুখোমুখি হয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর প্রাক্তন সহযোগী ডমিনিক কমিংস অভিযোগ করেছেন, বরিস জনসন এই কাজের জন্য বিভিন্ন দাতাদের কাছ থেকে গোপনে অর্থ নিতে চেয়েছেন। তবে টরি মন্ত্রীরা বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজের পকেট থেকে এই অর্থ প্রদান করেছেন।

বরিস জনসন এবং তার বাগদত্তা ক্যারি সাইমন্ডস ১১ নং ডাউনিং স্ট্রিটের ফ্ল্যাট নতুন করে সংস্কার করেন। এই ফ্ল্যাটে তারা বাস করেন এবং ফ্ল্যাটটির মূল্য প্রায় ২ লক্ষ পাউন্ড।

ব্রিটিশ ফ্যাশন ম্যাগাজিন ট্যাটলার মতে, এই দম্পতি তাদের ফ্ল্যাটের সংস্কারের জন্য স্বনামধন্য ইন্টিরিওর ডিজাইনার লুলু লাইটেলকে পছন্দ করেছিলেন। বরিস দম্পতির পরিকল্পনা ছিল তাদের ফ্ল্যাটকে একটি উচ্চবিত্তের আবাসস্থলে রূপান্তর করার।

সোমবার (২৬এপ্রিল) রেক্সহাম সফরকালে সাংবাদিকদের এই বিষয়ে বরিস জনসন বলেন, ফ্ল্যাটটি সংস্কার বিষয়ে যে কোনো ঘোষণা অবশ্যই যথাযথভাবে দেওয়া হবে। তিনি আরো বলেন, বিষয়টি লোকেরা যা বলছে তা নয়।

প্রধানমন্ত্রী বাড়ির পেছনে ব্যয় করতে ৩০ হাজার পাউন্ডের একটি বার্ষিক পাবলিক ভাতা পান। এটি অস্পষ্ট যে প্রধানমন্ত্রী ৩০ হাজার পাউন্ড ভাতার বাইরে ফ্ল্যাট সংস্কারের জন্য কিভাবে অর্থ প্রদান করেছনে।

রাজনৈতিক দলগুলোকে অবশ্যই ৭৫০০ পাউন্ডের বেশি যে কোনো অনুদান বা ব্যাংক লোন সম্পর্কে প্রতিবেদন করতে হবে এবং মন্ত্রিদের অবশ্যই এমন কোনো অনুদানের ঘোষণা দিতে হবে ২৮ দিনের মধ্যে। এগুলোর একটিও বরিস জনসন করেননি।

লেবার পার্টির স্যার কায়ার স্টারমার বলেন, এই বিষয়ে জবাব পাওয়া আমাদের কাছে জরুরি। তিনি নির্বাচনের কমিশনকে এই বিষয়ে পূর্ণ তদন্ত করার আহ্বান জানিয়েছে।

এর আগেও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিজের বেতন স্বল্পতাসহ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে বিতর্কের মুখোমুখি হতে হয়েছে টরি পার্টির এই নেতা।সূত্র: ইন্ডিপেনডেন্ট