• ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৪ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

ভারতে সংক্রমণ ও মৃত্যুর নতুন বিশ্বরেকর্ড

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত এপ্রিল ২৪, ২০২১
ভারতে সংক্রমণ ও মৃত্যুর নতুন বিশ্বরেকর্ড

 

বিবিএন আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ধারাবাহিকভাবে বেড়ে চলেছে ভারতের করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। শনিবার তা পৌঁছে গেল সাড়ে তিন লাখের দোরগোড়ায়। পাশাপাশি দৈনিক মৃত্যুও আড়াই হাজার ছাড়াল এই প্রথমবার। গত ২৪ ঘণ্টায় দু’লক্ষাধিক সুস্থ হয়ে উঠলেও গত এক সপ্তাহ ধরে সক্রিয় রোগী বাড়ছে এক লাখেরও বেশি। আনন্দবাজার।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩ লক্ষ ৪৬ হাজার ৭৮৬ জন। সব মিলিয়ে গত বছর থেকে এখনও অবধি আক্রান্ত হলেন ১ কোটি ৬৬ লক্ষ ১০ হাজার ৪৮১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর সংখ্যায় নতুন রেকর্ড তৈরি হয়েছে। শনিবার ২ হাজার ৬২৪ মৃত্যু হওয়ায় দেশটিতে এখনও পর্যন্ত প্রাণ হারালেন ১ লক্ষ ৮৯ হাজার ৫৪৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মহারাষ্ট্রে ৭৭৩ জন এবং দিল্লিতে ৩৪৮ জন মারা গেছেন।

আক্রান্ত বৃদ্ধির জেরে দেশে সক্রিয় রোগী বাড়ছে। এই বৃদ্ধি স্বাস্থ্য পরিষেবাকে নতুন চ্যালেঞ্জের মুখে দাঁড় করিয়েছে। শনিবার ভারতে সক্রিয় রোগী বেড়েছে ১ লাখ ২৪ হাজার ৩২৪। ফলে মোট সক্রিয় রোগীর সংখ্যা হল ২৫ লক্ষ ৫২ হাজার ৯৪০। গত বছর সেপ্টেম্বর মাসের মাঝামাঝি নাগাদ সর্বোচ্চ সংখ্যক রোগী ছিল ভারতে। এ়খনকার সংখ্যা সেই সংখ্যার দ্বিগুণেরও বেশি।

করোনা পরিস্থিতির ভয়াবহতায় ভারতে দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা কাজ করেও শ্মশানে ফুরোচ্ছে না লাশের সারি। উপায়ন্তর না দেখে জ্বালানো হচ্ছে গণচিতা। শুধু শ্মশানই নয়, রাজধানীর কবরস্থানগুলির অবস্থাও এক। দেহ সমাহিত করার জায়গা পেতে হিমশিম খেতে হচ্ছে কোভিডে মৃতদের পরিবারকে।

এর আগে গুজরাত, মধ্যপ্রদেশের মতো জেলায় শ্মশানের বাইরে দেহ নিয়ে সারি সারি অ্যাম্বুল্যান্স দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গিয়েছিল। তবে দিল্লিতে পরিস্থিতি এমন পৌঁছেছে যে, শ্মশানের বাইরে লাইনেও জায়গা পাচ্ছেন না অনেকে। বাধ্য হয়ে বাড়িতেই প্রিয়জনের মৃতদেহ রেখে দিতে হচ্ছে।