• ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১লা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি

ব্রীজ আছে,নেই সংযোগ সড়ক,চরম ভোগান্তির শিকার এলাকাবাসী

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত এপ্রিল ৭, ২০২১
ব্রীজ আছে,নেই সংযোগ সড়ক,চরম ভোগান্তির শিকার এলাকাবাসী

 

লতিফুর রহমান রাজু, সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা বাদাঘাট ইউনিয়নের দুর্গাপুর-ললিয়া পুর গ্রামের সংযোগ সড়কের ৩টি ব্রীজের একটিতেও নেই সংযোগ সড়ক। এই সড়কে থাকা ৩টি ব্রীজের গোড়ার মাটি সরে গিয়ে ব্রীজের সাথে সড়কের সংযোগ না থাকায় এই রাস্তা দিয়ে প্রায় ১০থেকে ১৫ টি গ্রামের প্রায় ৫০ হাজার মানুষের যাতায়াতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। বিশেষ করে বর্ষামৌসুমে ওই রাস্তা দিয়ে চলাচলকারি জনসাধারণের ভোগান্তির যেন অন্তনেই। ললিয়াপুর ,চান্দারগাও,আসামগাও,ও মানিকটিলা কিত্তার ধান, সবজি ও ও মানুষ যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা এটি।

ললিয়াপুর গ্রামের ওয়ালিদ মিয়া(৪৮) বলেন, এই কয়েকটি গ্রামের মানুষের যাতায়াতের সুবিধার জন্য এ রাস্তাটি ব্রিটিশ পিরিয়ডের তৈরি করা হয়েছিল।কিন্তু স্বাধীনতার ৫০ বছরে এর সুবিধা ভোগ করতে পরছিনা। প্রতি নির্বাচন সামনে আসলেই চেয়ারম্যান মেম্বার প্রার্থীরা সড়কের ব্রীজের গোড়ায় মাটি ফেলা সহ রাস্তা করে দিবে প্রতিশ্রুতি দিয়ে কাল ক্রমে চেয়ারম্যান আসেন চলে যান কিন্তু রাস্তা যেভাবে ছিল সেভাবেই পড়ে আছে।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী দুর্গাপুর নতুন হাটি গ্রামের  শামসুদ্দিনের ছেলে ফরিদ মিয়া জানান কত মেম্বার চেয়ারম্যান ক্ষমতায় এসেছেন চলে যাচ্ছেন কিন্তু এই রাস্তা মেরামতের জন্য কারো কোন উদ্যোগ গ্রহণ করতে দেখি নাই । গত সাত-আট বছর  আগেরর চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট চবাব মিয়াঁ এই রাস্তায় তিনটি কালভার্ট নির্মাণ করেছিলেন। তখন রাস্তার এবং কালর্বাডের গোড়ায় মাটি ছিল । প্রায় চার মাস  বন্যার সময় এ রাস্তাটি পানির নিচে তলিয়ে থাকে আর ৮ মাস আমরা এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করি এবং আমাদের কৃষিপণ্য সহজে ঐ অঞ্চল থেকে বাড়িতে নিয়ে আসার একটিই রাস্তা এটা । এ বিষয়ে বাদাঘাট দক্ষিণ ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের মহিলা সদস্য প্রতিমা রানী দেবী বলেন, আমরা বরাদ্দের জন্য সরকারের কাছে আবেদন করেছি বরাদ্দ পেলেই রাস্তা ও কালবার্ড এর মেরামত কাজ করা হবে। এ বিষয়ে বাদাঘাট দক্ষিণ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এরশাদ আহমদ বলেন, এই রাস্তাটি সচল করে দেয়ার জন্য সরকারের কাছে বরাদ্দের আবেদন করা হয়েছে আমাদের হাতে বরাদ্দ এলেই রাস্তার কাজ শুরু করা হবে এবং অচিরেই মানুষ ও যানবাহন চলাচলের জন্য উপযোগী রাস্তা করা হবে।