• ২৯শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৫ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সুনামগঞ্জ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান আয়ূব বখত জগলুলে’র ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী পালন

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ১, ২০২১
সুনামগঞ্জ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান আয়ূব বখত জগলুলে’র ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী পালন

লতিফুর রহমান রাজু সুনামগঞ্জ:সুনামগঞ্জের সাবেক জননন্দিত সাবেক প্রয়াত মেয়র আয়ূব বখত জগলুলের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বিকেলে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর হাসন রাজা মিলনায়তনে আয়ূব বখত জগলুল স্মৃতি পরিষদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত।

ছাত্রলীগ নেতা শাহ জুনায়েদ আহমদ সৃজন ও প্রগতি সংগঠনের মুখপাত্র সাদিকুর রহমান রুবেলের যৌথ সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল হুদা মুকুট, তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হায়দার চৌধুরী লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুর রহমান সিরাজ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের সাবেক কামান্ডার হাজী নুরুল মোমেন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি নজরুল ইসলাম শেফু, সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান সেলিম, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা জগৎ জ্যোতি পাবলিক লাইব্রেরীর সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সালেহ আহমদ, শিক্ষাবিদ যোগেশ্বর দাস, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রেজাউল করিম নিক্কু, সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি অ্যাড. মনিষ কান্তি দে মিন্টু, সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি  লতিফুর রহমান রাজু,  সাবেক রাজনীতিবিদ হাবিবুর রহমান হাবিব, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. শামছুল আবেদীন, জেলা মহিলা পরিষদের সভাপতি গৌরি ভট্টাচার্য্য, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিমান রায়, সুনামগঞ্জ পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আহমদ নূর, মহিলা কাউন্সিলর সামিনা চৌধুরী মনি প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, আয়ূব বখত জগলুল সুনামগঞ্জ পৌরসভার উন্নয়নের রূপকার। তার মধ্য দিয়ে সুনামগঞ্জ পৌরসভার উন্নয়নের যাত্রা শুরু করে। আয়ূব বখত জগলুল রাজনীতিতে ছিলেন সৎ। তিনি যখন ছাত্র রাজনীতি করেছেন একজন পরিচ্ছন্ন রাজনীতি করেছেন। তিনি সুনামগঞ্জের পৌরসভার মানুষের কথা সবসময় ভেবেছেন। আয়ূব বখত জগলুল এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের সময় ছিলেন তরুণ। সেই সময় আমরা দেখেছি তিনি প্রতিটা আন্দোলনে কিভাবে নেতৃত্ব দিয়েছেন। অন্যায়ের সাথে কোনদিন তিনি আপোষ করেননি। সুনামগঞ্জ পৌরসভার নাগরিকদের জীবনমান উন্নয়নে তিনি সবসময় ভেবে গিয়েছেন। তিনি বেঁচে থাকলেও হয়তো সুনামগঞ্জ পৌরসভার উন্নয়ন আরও দ্রুত গতিতে হতো কিন্তু এখন আয়ূব বখত জগলুলের ছোটভাই নাদের বখত রয়েছেন। তিনি তার ভাইয়ের সুনামগঞ্জ পৌরসভাকে নিয়ে দেখে যাওয়া স্বপ্ন দেখেছিলেন তা যেন আপনার মাধ্যমে পূরণ হয় সেটাই আমরা চাই।