• ৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৫ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সুনামগঞ্জে,সততার নজীর দেখালেন ইমাম আহমেদ হোসাইন,ফেরৎ দিলেন পৌনে ৬ লক্ষ টাকা

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জানুয়ারি ১৮, ২০২১
সুনামগঞ্জে,সততার নজীর দেখালেন ইমাম আহমেদ হোসাইন,ফেরৎ দিলেন পৌনে ৬ লক্ষ টাকা

বিশেষ প্রতিনিধিঃ  ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা হওয়া টাকা নিজের না হওয়ায় পৌনে ছয় লাখেরও বেশি টাকা ব্যাংককেই ফেরত দিলেন একজন ইমাম। নেত্রকোনার খালিয়াজুরী শাখা কৃষি ব্যাংকে এই টাকা ফেরতের ঘটনা হয়।

টাকা ফেরত দেওয়া হোসাইন আহমেদ সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার শ্যামারচর বাজার জামে মসজিদে ইমামতি করেন। তিনি সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার আটগাঁও ইউনিয়নের মাহমুদপুর গ্রামের বাসিন্দা।

ব্যাংকটির ব্যবস্থাপক তাপস মঞ্জুসা দেবরায় জানান, ব্যাংকে হোসাইন আহমেদের নামে সঞ্চয়ী হিসাব রয়েছে। এই হিসাব থেকে ২০১৮ সালে সর্বশেষ টাকা উত্তোলন করা হয়েছিল। রোববার গ্রাহক হোসাইন আহমেদ টাকা তুলতে ব্যাংকে এসে হিসাবে কত টাকা আছে জানতে চান।

তিনি জানান, এ সময় দায়িত্বরত কর্মকর্তা হিসাব দেখে জানান, একাউন্টে ৫ লাখ ৯১ হাজার ২৬৮ টাকা রয়েছে। এ সময় গ্রাহক হোসাইন আহমেদ জানান তার হিসাবে ১০ হাজার টাকা থাকার কথা। এতো টাকা তার নয়। পরে ব্যাংকের কর্মকর্তারা ভাল করে চেক করে দেখেন একাউন্টে ৫ লাখ ৯১ হাজার ২৬৮ টাকাই রয়েছে। এ অবস্থায় গ্রাহক হোসাইন আহমেদ তার হিসাব থেকে ১০ হাজার টাকার বেশি টাকা নিতে অস্বীকার করেন। পরে তিনি তার হিসাব থেকে ৫ লাখ ৮১ হাজার ২৬৮ টাকা উত্তোলন করে ব্যাংকে ফেরত দেন।

তিনি আরও জানান, ব্যাংকে ডিজিটাল একাউন্ট করার সময় হয়তো বা সংখ্যায় ভুল করে এই হিসাবে চলে এসেছে। আমরা অনেক খোঁজাখুঁজি করে সঠিক মালিক না পেয়ে ব্যাংক নিয়মানুযায়ী ওই টাকাটা অতিরিক্ত হিসাবে রাখা হয়েছে।

হোসাইন আহমদ বলেন, আমার একাউন্টে ১০ হাজার টাকা আছে, বাকি টাকা আমার না। ভুল করে আসা ৫ লাখ ৮১ হাজার ২৬৮ টাকা ব্যাংকে ফেরত দিয়েছি।টাকার সঠিক মালিক খুঁজে তার একাউন্টে হস্তান্তর করার জন্য ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে বলেছি। যেহেতু টাকাটা আমার না তাই এই টাকার প্রতি আমার হক নেই। এ কারণেই আমার সুযোগ হলেও টাকাটা নেইনি আমি। উৎস যুগান্তর