• ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১লা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

নৌকায় চড়ে ধানের শীষের প্রচারকারীদের অবাঞ্ছিত ঘোষণা

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জানুয়ারি ১৩, ২০২১
নৌকায় চড়ে ধানের শীষের প্রচারকারীদের অবাঞ্ছিত ঘোষণা

ছাতক প্রতিনিধিঃ ছাতক পৌরসভা নির্বাচনে  চলছে শেষ ধাপের প্রচারনা। বিশেষ করে মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে চলছে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ। ন্যান্সি না কালাম? এ প্রশ্ন এখন সর্বত্র। নৌকায় চড়ে যারা ধানের শীষের প্রচারনা করছেন তাদের আওয়ামীলীগে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করলেন আওয়ামীলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ। ছাতক উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে এক বিশাল গণমিছিল অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

রোববার বিকেলে শহরের শেখ রাসেল মিনি ষ্টেডিয়াম(মন্টুবাবুর মাঠ) থেকে গণমিছিলটি শুরু হয়ে শহর প্রদক্ষিণ শেষে ট্রাফিক পয়েন্টে এসে পথসভায় মিলিত হয়।

সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক, ছাতক পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী, বর্তমান মেয়র আবুল কালাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য আজমল হোসেন সজলের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত পথ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রিয় আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আলহাজ্ব মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, আপনারা নৌকায় ভোট দিন, শেখ হাসিনা আপনাদের উন্নয়ন দেবেন। মেয়র প্রার্থী আবুল কালাম চৌধুরীকে নৌকা উপহার দিয়েছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। বিপুল ভোটের মাধ্যমে বিজয় উপহার দিয়ে এর মর্যাদা রাখুন। তিনি আরো বলেন, যারা আওয়ামীলীগের নৌকায় চড়ে ধানের শীষের প্রচার করছে তারা অবাঞ্চিত সন্তান। এসব অবাঞ্চিতদের আওয়ামীলীগে স্থান হবে না। বিগত দিনের মতো আবারো নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আবুল কালাম চৌধুরীকে বিজয়ী করার আহবান জানান তিনি। পথ সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নূরুল হুদা মুকুট, ছাতক পৌরসভার প্রতিষ্ঠাকালীন চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল ওয়াহিদ মজনু, পরিকল্পনা মন্ত্রীর একান্ত সচিব আবুল হাসনাত প্রমুখ। এসময় যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ নেতা শাহজাহান চৌধুরী, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক, কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য শামীম আহমদ চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা অজয় ঘোষ, আলকাছ আলী, শাহজাহান মিয়া, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস শহীদ, আওয়ামীলীগ নেতা, শামীমুল ইসলাম শামীম, স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রিয় সদস্য শাহীন আহমদ চৌধুরী, রেজা মিয়া তালুকদার, হাজী আবুল হায়াত, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম সম্পাদক আহবাব মিয়া তালুকদার সাজু, দেওয়ান আবুল কালাম মাষ্টার, হাজী আশিক মিয়া, শাহ ইউলয়াছ, আবু সাইদ চৌধুরী বাবুল, প্রনয় কুমার আচার্য মুন্না, আব্দুল বারী চপল, আব্দুল মমিন, আখলুছ মিয়া, তজম্মুল আলী, আফতাব মিয়া(সাবেক পৌর কমিশনার), মমিন মিয়া, হাজী বুরহান উদ্দিন, হাজী আকবর আলী, মীর সামছু মিয়া, আওয়ামীলীগ নেতা আখলুছ মিয়া, রুহুল আমিন তালুকদার, এবাদুল হক এমাদ, যুবলীগ নেতা নিজাম মিয়া, মাসুক মিয়া, হাজী জামিল মিয়া, দিলোয়ার মিয়া, মামুন মিয়া, নজরুল চৌধুরী, মাহির চৌধুরী, রহমত আলী, মতিন মিয়া, ফজলে রাব্বী জনি, মাছুম আহমদ, সায়েদ আহমদ, মোফাজ্জল হোসেন, ব্যবসায়ী জাহাঙ্গির আলম, হাজী ইয়াহইয়া মিয়া, হাজী বিরহাম মিয়া, সাদিক মিয়া তালুকদার, আব্দুল মুকিত, মাওলানা নিজাম মিয়া, বখতার মিয়া, শাহ সমুজ মিয়া, শাহ ফারুক মিয়া, রিয়াজ আহমদ চৌধুরী, ইকবাল হোসেন রানা, আবুল খয়ের টুটুল, নিতাই রায়, অমর দেবনাথ, আব্দুল কাহার রাজু, মোজাম্মল হক চৌধুরী রুহেল, শ্রমিকলীগ নেতা খুলিলুর রহমান, মিয়া হোসেন, স্বপন তরফদার, শাহ এনামুল হক, দিলবর আলী, বুলবুল মিয়া, ছাত্রলীগ নেতা জামায়েল আহমদ ফরহাদ, রিয়াদ আহমদ চৌধুরী, কামরুল হাসান চৌধুরী সজীব, রুবেল তালুকদার জনি, আব্দুল কাদির তালুকদার, জাহাঙ্গির আলম তারেক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •