• ১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

ছাতক পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে ভোটারদের ভাবনা….

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জানুয়ারি ১০, ২০২১
ছাতক পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে ভোটারদের ভাবনা….

আগামী ১৬ ই জানুয়ারী আমাদের ছাতক পৌরসভার নির্বাচন। দেশের অন্যান্য পৌরসভার নির্বাচনের মতোই এখানে প্রচারনে চলছে রকেট গতিতে। কেউ বসে নেই, সবাই ভোটারদের আকৃষ্ট করার চেষ্টা করছেন। দিচ্ছেন পাহাড় সমান প্রতিশ্রুতি, যদি ও অনেকেই সেই প্রতিশ্রুতি পালনের কোন ক্ষমতা রাখেন না। নিজের দায় দায়িত্বের বাইরে গিয়ে ও অনেক প্রার্থী ভোটারদের কাছে ওয়াদা করছেন। সেদিন এক কাউন্সিলার প্রার্থী দেখলাম ওয়াদা করছেন যে তিনি নির্বাচিত হলে, ছাতক পৌরসভা কে একটি মডেল পৌরসভায় পরিনত করবেন অথচ তার কাজের পরিধি খুবই সীমিত!! এ ধরনের গতানুগতিক প্রতিশ্রুতি কি এখন ও  চলবে?

ছাতক একটি শিল্প শহর, শিল্প নগরী।   সেই বৃটিশ আমল থেকেই  ছাতক ব্যবসার জন্য প্রসিদ্ব।  এখানে যেমন রয়েছে দেশের একমাত্র রাষ্ট্রয়াত্ব ” ছাতক  সিমেন্ট ফ্যাক্টরী” তেমনি রয়েছে এশিয়ার অন্যতম “ছাতক লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট” ফ্যাক্টরী।  সরকারের রাজস্ব আয়ের বিরাট একটি অংশ এখান থেকে আদায় করা হয়। এ দুটি কারখানায় কর্মরত আছেন দেশ বিদেশের শত শত শ্রমিক।

হাজার বছরের ইতিহাস, ঐতিহ্যের সাক্ষী ঐতিহাসিক সুরমা নদী ছাতক শহরের বুকছিড়ে বহমান। নদীর দুই পাড়ের বাসিন্দা নিয়েই ১৯৯৭ সালে গঠিত হয় ছাতক পৌরসভা। জন্ম লগ্ন থেকেই ছাতক পৌরসভার নেতৃত্ব দিচ্ছে আওয়ামীলীগ। পৌরসভার যা কিছু উন্নয়ন হয়েছে তা আওয়ামী দলীয় মেয়রদের হাত ধরেই হয়েছে  আর ঘাঠতি যা হয়েছে তা তাদেরই ব্যর্থতা।
উন্নয়ন আর ব্যর্থতার হিসাব কষেই এবারে ভোটাররা ভোট দেবেন বলে মনে হচ্ছে।

বিগত ১৫ বছর ধরে একটানা মেয়র পদে দায়িত্ব পালন করছেন আওয়ামীলীগ নেতা জনাব আবুল কালাম চৌধুরী। তিনি সবচেয়ে জনপ্রিয় মেয়র বলে জনশ্রুতি রয়েছে। অতীতে সবকটি নির্বাচনে তিনি বিশাল ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করেন। তার পারিবারিক ও ব্যক্তি ইমেজে তিনি অন্যান্য প্রার্থীর চেয়ে  অনেকাংশে এগিয়ে থাকেন তদুপরি রয়েছে দলীয় ভোট ব্যাংক।

আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা ও বার বার আবুল কালাম চৌধুরীর কাছে পরাজিত হয়েছেন। সুতরাং এ দিক থেকে বিচার করলে নিঃসন্দেহে কালাম  চৌধুরী একজন  শক্তিশালী  প্রার্থী। তবে দলীয় কোন্দল, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য, অপরিকল্পিত নগরায়ন ইত্যাদি ইস্যু সঠিক ভাবে সামাল না দেবার ও বিস্তর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।
দীর্ঘ  সময় ক্ষমতায় থাকলে ও উন্নয়নের প্রশ্নে ভোটারদের মাঝে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

অপর দিকে বিএনপির মনোয়ন নিয়ে মাঠে নামছেন নারায়নগন্জের আইভি খ্যাত রাশিদা আহমদ ন্যান্সি। তিনি ছাতক উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান। সুরমার এক পাড়ে তার  বাবার বাড়ি অন্য পাড়ে স্বামীর বাড়ি। দুই পাড়ের মানুষ কে নিয়ে তিনি স্বপ্ন দেখা শুরু করছেন। রাজনৈতিক পরিবারে তার জন্ম। নোয়ারাই ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রিয়  সাবেক চেয়ারম্যান ছিলেন তার বাবা প্রয়াত হবিবুর রহমান( হবি)। অনেকটা সাহস করে তিনি মাঠে নেমেছেন। আওয়ামী দুর্গে হানা দিয়ে ভোট যুদ্ধে জয়ী হতে চান…… চলবে। 

এ এম সমুজ, লেখক ও কলামিস্ট, মানচেষ্টার লন্ডন