• ৯ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ৫ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

ইংল্যান্ডে করোনা আক্রান্তদের জীবন রক্ষাকারী আরো দুটি ওষুধ আবিষ্কার

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত জানুয়ারি ৮, ২০২১
ইংল্যান্ডে করোনা আক্রান্তদের জীবন রক্ষাকারী আরো দুটি ওষুধ আবিষ্কার

সাঈদ চৌধুরী: বৃটেনে কোভিড আক্রান্তদের জীবন রক্ষাকারী আরো দুটি ওষুধ পাওয়ার কথা জানা গেছে। এতে অসুস্থ রোগীদের মৃত্যু এক চতুর্থাংশের মধ্যে কমিয়ে আনা সম্ভব হতে পারে। এনএইচএস ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটগুলিতে পরীক্ষা চালিয়েছেন, সেসব গবেষকরা এমনটি জানিয়েছেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সরবরাহগুলি ইতিমধ্যে সমগ্র ইউকে জুড়ে রয়েছে। যাতে সেগুলি তাত্‍ক্ষণিক ভাবে শত শত জীবন বাঁচাতে ব্যবহার করা যায়।

গতকাল প্রকাশিত সরকারী অনুদান প্রাপ্ত আরইএমএপি-সিএপি ক্লিনিকাল পরীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী, টোকিলিজুমব এবং সরিলুমব ড্রাগ ইনটেনসিভ কেয়ারে ভর্তি রোগীদের ২৪ ঘন্টার মধ্যে ২৪% মৃত্যুর তুলনামূলক ঝুঁকি হ্রাস করে। আজ থেকে সরকার এবং এনএইচএস কর্তৃক যুক্তরাজ্য জুড়ে ট্রাস্টগুলিতে আপডেট নির্দেশিকা জারি করা হবে, যাতে তাত্‍ক্ষণিক ভাবে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট সমূহে ভর্তি হওয়া কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসায় এটি ব্যবহার করতে উৎসাহিত করা হবে। চিকিৎসাটি এনএইচএস রোগীদের জন্য দ্রুত নিশ্চিত করা হচ্ছে।

ক্লিনিকাল পরীক্ষার ফলাফলে দেখা যায়, ওষুধগুলি গুরুতর অসুস্থ রোগীদের মৃত্যুর ঝুঁকি কমায় ২৪% এবং নিবিড় যত্নে ১০ দিন সময় বাঁচায়। ইউকে জুড়ে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট সমূহে কোভিড আক্রান্তদের জন্য জীবন রক্ষাকারী চিকিৎসা গ্রহণ করা হবে।

ওষুধগুলি তাৎক্ষণিক ও কার্যকর ভাবে এনএইচএস স্বাস্থ্যসেবা গুলিতে পাওয়া যাবে বলে সরকার গতকাল বৃহস্পতিবার নিশ্চিত করেছে।

ওষুধ নির্মাতা মেনুফেকচারারদের সাথে সরকার নিবিড়ভাবে কাজ করছে, যাতে ওষুধগুলি সরবরাহ নিশ্চিত করা যায় এবং জীবন বাঁচানোর পাশাপাশি মারাত্মক অসুস্থ রোগীদের চিকিৎসা তরান্বিত হয়। পরীক্ষায় দেখা গেছে, উভয় ওষুধ সমানভাবে কাজ করে এবং ডেক্সামেথেসোন নামক একটি সস্তা স্টেরয়েড ড্রাগের সাথে ইতিমধ্যে উপকার পাওয়া গেছে। জীবন রক্ষাকারী এই করোনা ভাইরাস ড্রাগকে একটি যুগান্তকারী সংবাদ বলে অবিহিত করা হচ্ছে।

ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডনের প্রাক্তন গবেষক প্রফেসর অ্যান্টনি গর্ডন বলেছেন, এই ওষুধ দিয়ে চিকিৎসা করেন, আপনি জীবন বাঁচানোর আশা করতে পারেন। এটি একটি বড় সাফল্য। প্রায় ৮০০ ইনটেনসিভ কেয়ার রোগীদের যুক্তরাজ্য সহ ছয়টি পৃথক দেশে পরিচালিত আরইএমএপি-সিএপি পরীক্ষায় প্রমানিত।

এনএইচএস ন্যাশনাল মেডিকেল ডাইরেক্টর প্রফেসর স্টিফেন পাওস বলেছেন, এই ওষুধ কোভিড-১৯ রোগীদের মৃত্যুর হার হ্রাস করতে সহায়তা করবে। এটি ভাইরাসের বিরুদ্ধে অব্যাহত লড়াইয়ে বিপুলভাবে স্বাগত হওয়া সংবাদ এবং আরও একটি ইতিবাচক বিকাশ।

হেলথ এন্ড সোসিয়াল কেয়ার সেক্রেটারি ম্যাট হ্যাঙ্কক বলেছেন, আবারো প্রমাণ হচ্ছে রোগী সনাক্তকরণ এবং উদ্ভাবনী চিকিৎসা দেয়ার ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্য সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে। আজকের ফলাফল এই মহামারী থেকে বেরিয়ে আসার উপায় খুঁজে বের করার ক্ষেত্রে আরও একটি যুগান্তকারী উন্নয়ন।(ওয়ান বাংলা)

ডেপুটি চিফ মেডিকেল অফিসার অধ্যাপক জোনাথন ভ্যান-ট্যাম বলেছেন, কোভিড-১৯ ইনটেনসিভ কেয়ারে রোগীদের বেঁচে থাকার জন্য এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। টোকিলিজুমব এবং সরিলুমব ইনটেনসিভ কেয়ারে রোগীদের দ্রুততর উন্নতি করে, যা হাসপাতালের উপর চাপ কমাতে এবং জীবন বাঁচাতে সাহায্য করার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এটি যুক্তরাজ্যের দুর্দান্ত গবেষণা অবকাঠামো এবং জীবন বিজ্ঞান শিল্পে এই রোগ সম্পর্কে বিশ্বব্যাপী উপলব্ধি অর্জনের প্রমাণ, যা আমরা ক্লিনিক্যাল গবেষণার নিজস্ব প্রোগ্রামের মাধ্যমে এবং আন্তর্জাতিক গবেষণায় খুব বড় অবদান রাখার দক্ষতার মাধ্যমে অর্জন করেছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •