• ১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১০ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

দোয়ারায় আগুনে পুড়া শরির নিয়ে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে স্কুল ছাত্রী নীপা

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত ডিসেম্বর ২২, ২০২০
দোয়ারায় আগুনে পুড়া শরির নিয়ে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে স্কুল ছাত্রী নীপা

 

রেজাউল করিম রেজা, ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি :সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে মজলুফা বেগম নীপা (১২) নামের এক স্কুল ছাত্রী আগুনে পুড়া শরির নিয়ে এক সপ্তাহ ধরে বিছানায় যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে। দরিদ্র পরিবারটি টাকার অভাবে তাকে ভর্তি করাতে পারছেন না সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। দিতে পারছেন না উন্নত চিকিৎসা। চোখের সামনে মেয়ের এমন যন্ত্রনা দেখতে হচ্ছে দরিদ্র পরিবারটি। তাই মেয়ের চিকিৎসার জন্য সমাজের সকল শ্রেনী পেশার মানুষের কাছে সাহায্য চেয়েছেন নীপার পরিবার।
জানা যায়, দোয়ারাবাজার উপজেলার পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের শ্রীপুর-আফছরনগর গ্রামের কৃষক ইউসুফ আলীর কন্যা মজলুফা বেগম নীপা। সে স্থানীয় শ্রীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী। জানুয়ারীতে ৬ষ্ট শ্রেণিতে ভর্তি হয়ে লেখা-পড়া করার আগ্রহ ছিল তার। কিন্তু গেল ১৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় পরিবারের রান্না করতে গিয়ে অসাবধানতা বশত আগুন তার পড়নের ওড়নায় লেগে যায়। এক পর্যায়ে জামা-কাপড়ে আগুন লেগে তার শরিরের পিঠের অংশ দগ্ধ হয়ে গেছে। পরে পরিবারের লোকজন তাকে তাৎক্ষনিক স্থানীয় বাজিতপুর উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রের উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার ডাক্তার এসএম শফিকুল ইসলামের কাছে নিয়ে গেলে তিনি প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন। এ প্রাথমিক চিকিৎসা এখনও চলছে। ওই চিকিৎসক বলছেন তার চিকিৎসায় মেয়েটি ভাল হয়ে উঠবে। চিকিৎসকের এমন আশ্বাসে দরিদ্র পরিবারটি এক সপ্তাহ ধরে তার মাধ্যমেই নীপার চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে দোয়ারাবাজার উপজেলার বাজিতপুর উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রের উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার ডাক্তার এসএম শফিকুল ইসলাম বলেন, মেয়েটিকে তিনি প্রথম থেকেই বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এ চিকিৎসায় সে এখন উন্নতির পথে। তবে কিছু টাকা পয়সা খরচ করতে সক্ষম হলে উন্নত চিকিৎসায় মেয়েটি দ্রুত সুস্থ্য হয়ে উঠতে পারত। নীপার মা নাজমা বেগম জানান, চিকিৎসায় মেয়েটি আগ থেকে কিছু উন্নতির দিকে। তবে অর্থের অভাবে তাকে উন্নত চিকিৎসা সেবা দিতে পারছে না। মেয়ের চিকিৎসায় এগিয়ে আসতে তিনি সমাজের সকল শ্রেনী পেশার মানুষের কাছে সাহায্য কামনা করছেন। নীপাকে সাহায্যে (০১৭১৪-৭৫৫৯০৫) মোবাইল (পার্সোনাল) বিকাশ করার জন্য তিনি আহবান জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •