• ১৬ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১লা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ:প্রতিবাদে সিলেটে ‘সংক্ষুব্ধ নাগরিকবন্ধন’

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত ডিসেম্বর ২০, ২০২০
সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ:প্রতিবাদে সিলেটে ‘সংক্ষুব্ধ নাগরিকবন্ধন’

সিলেট প্রতিনিধি :: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপপ্রয়োগের প্রতিবাদে ও সিলেটের জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক চৌধুরী মুমতাজ আহমদসহ সকল সাংবাদিকদের ওপর থেকে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এবং সাংবাদিক ও সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের প্রতিবাদে সংক্ষুব্ধ নাগরিকবন্ধনের ডাক দেয়া হয়েছে।

সোমবার (২১ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলনের উদ্যোগে এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। এতে সকলের উপস্থিতি কামনা করেছেন সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ।

পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের জের ধরে গত ৪ ডিসেম্বর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের করেন সিলেট নগরীর ২২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিম। মামলায় বিবাদি করা হয়েছে, সিলেটের স্থানীয় দৈনিক একাত্তরের কথার সম্পাদক চৌধুরী মুমতাজ আহমদ, প্রকাশক মো. নজরুল ইসলাম, বার্তা সম্পাদক সাঈদ চৌধুরী টিপুসহ ১৮ জনকে।

নাগরিকবন্ধন প্রসঙ্গে সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলনের নেতৃবৃন্দের মধ্যে আব্দুল করিম কিম বলেন, ‘সংবাদ প্রকাশে ভুল থাকতেই পারে। আপত্তি থাকতে পারে। প্রকাশিত সংবাদে কেউ অসন্তুষ্ট হতে পারে। মানহানি বা মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে মনে করা হলে মানহানির মামলা কিংবা প্রেস কাউন্সিলে নালিশ করা যেতে পারে। কিন্তু ওসব না করে একটি সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করার অভিযোগ দিয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা অহেতুক হয়রানির। এই হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করায় ও সেই মামলা গ্রহণ করায় আমরা বিস্ময় প্রকাশ করছি। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের এমন অপপ্রয়োগে আমরা সংক্ষুব্ধ।’

আয়োজকরা বলেন, মামলা দায়েরের পর প্রায় ১৫ দিন অতিবাহিত হয়েছে। মামলার প্রতিবাদে সিলেটের নাগরিকদের সম্মিলিত ক্ষোভ প্রকাশ করা জরুরি ছিল। কিন্তু তেমন কিছু দৃষ্টিগোচর না হওয়ায় নাগরিকদের পক্ষে যা করা ন্যায়-সঙ্গত তা করতে নির্ভিকচিত্তে এগিয়ে আসা সিলেটের অন্যতম নাগরিক সংগঠন সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলন এ কর্মসূচি পালনের উদ্যোগ নিয়েছে। চৌধুরী মুমতাজ আহমদসহ সকল সাংবাদিকদের ওপর থেকে হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এবং সাংবাদিক ও সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের প্রতিবাদে আয়োজিত এই সংক্ষুব্ধ নাগরিকবন্ধন কর্মসূচিতে সংবাদপত্র ও সাংবাদিকদের স্বাধীনতার পক্ষে থাকা নাগরিকদের উপস্থিতি কামনা করা হয়েছে।