• ১৭ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৪ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

আজ সুনামগঞ্জের ‘রাজা’ মরমি কবি,বাউল সাধক হাসন রাজার ৯৮ প্রয়ান দিবস

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত ডিসেম্বর ৬, ২০২০
আজ সুনামগঞ্জের ‘রাজা’ মরমি কবি,বাউল সাধক হাসন রাজার ৯৮ প্রয়ান দিবস

মো: আব্দুস সালাম,সুনামগঞ্জ:লোকে বলে বলে ঘর বাড়ি ভালা না আমার’, ‘ মাটিরও পিঞ্জিরার মাঝে বন্ধি হইয়ারে,,,কান্দে হাসন রাজার মন ময়নারেমহ এমনও অসংখ্য আধ্যাতিক গানের জনক তিনি। ডিসেম্বর মাসেই বাউল সাদক হাসন রাজার জন্মমৃত্যু। তার জন্ম ও মৃত্যু দিবসে নেই কোন বড় ধরনের আনুষ্টানিকতা। বাংলা সাহিত্য সংস্কৃতি জগতের এই সাদক পুরুষের জন্ম ও মৃত্যু দিবস রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন করার দাবি তার ভক্ত ও সংস্কৃতি কর্মীদের। বাউল হাসন রাজার অমর কীর্তি রক্ষায় তাঁর জন্মস্থান সুনামগঞ্জে হাসন রাজা চর্চা গভেষণা কেন্দ্র স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন সংস্কৃতি প্রেমীরা।

আধ্যাতিক ধ্যান ধারণা, বাউল দর্শন, মরমিবাদ, প্রেম-বিরহ, বৈরাগ্যময় লোকাচার প্রভৃতি হাসন রাজার গানে উঠে এসেছে। তাঁর লেখা প্রায় ৫০০ শত গান বাংলা সাহিত্যের অন্যতম নিদর্শন। ১৮৫৪ সালের ২১ ডিসেম্বর সুনামগঞ্জের প্রখ্যাত দেওয়ান পরিবারে জন্ম তাঁর। বংশ পরাম্পরায় জমিদার বংশে হাসন রাজার জন্ম হলেও প্রচুর সম্পদ আর প্রার্থিব ঐশ^য্যের মোহ ত্যাগ করে মনোনিবেশ করেন ¯্রষ্টার আনুকুল্যলাভে। এক সময়ের ভোগ বিলাসী জমিদার হয়ে উঠেন প্রজাদরদি দরবেশ জমিদারে। রচনা করেন প্রায় ৫ শতাধিক মরমী গান। তাঁর জীবদ্দশায় ১৯০৭ সালে ২০৬টি গানের একটি সংকল প্রকাশিত হয়। যার নাম ছিল হাসন উদাস। তাঁর অনেক গান সারা বাংলাদেশের মানুষের মুখে মুখে। এ পর্যন্ত পাওয়া তাঁর গানের সংখ্যা ৫৫৩টি। অনেকেই অনুমান করেন হাসন রাজার গানের সংখ্যা হাজারের চেয়েও বেশি।
১৯২২ সালের ৬ ডিসেম্বর মৃত্যুবরণ করেন মরমি সাদক বাউল হাসন রাজা। সুনামগঞ্জের লক্ষশ্রীতে তাঁর মায়ের কবরে পাশে কবর দেয়া হয় তাকে। তার এই কবরখানা তিনি মৃত্যুর পূর্বেই নিজে প্রস্তুত করেছিলেন বলে জানা যায়। শহরের তেঘরিয়া এলাকায় সুরমা নদীর কুল ঘেঁষে দাঁড়িয়ে আছে হাসন রাজার স্মৃতি বিজরিত বাড়ি। যা দেখতে প্রতিদিন বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পর্যটকরা ছোটে আসেন।
হাসন রাজার সৃস্মিতে ধরে রাখতে পারিবারিক উদ্যোগের পাশাপাশি সরকারকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানালেন মরমি সাধকের এই প্রপৌত্র

দেওয়ান জয়নুল জাকেরীন হাসন রাজার প্রপৌত্র বলেন, আকাশ সংস্কৃতির আগ্রাসনে বিকৃত হচ্ছে হাসন রাজার গানের প্রকৃত কথা ও সুর। তাই হাসন রাজার গান সংরক্ষণে সুনামগঞ্জে হাসন রাজা চর্চা ও গবেষণা কেন্দ্র স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন সংস্কৃতি কর্মীদের।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ জানান, এদিকে হাসন রাজার মৃত্যু ও জন্ম দিবস উপলক্ষে ২০ ডিসেম্বর থেকে ভার্চ্যুয়ালি ৫দিন ব্যাপী হাসন রাজা স্মরণ উৎসবের আয়োজনের কথা জানালেন জেলা প্রশাসক

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •