• ১৬ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১লা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

তাহিরপুরে তিনদিন পর গৃহবধূর ক্ষত বিক্ষত লাশ উদ্ধার

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত নভেম্বর ২৫, ২০২০
তাহিরপুরে তিনদিন পর গৃহবধূর ক্ষত বিক্ষত লাশ উদ্ধার

লতিফুর রহমান রাজু সুনামগঞ্জ:সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলায় নিখোঁজ হওয়ার ৩ দিন পর ফুলবানু বেগম (৩৮) নামের এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  নিহত গৃহবধূ উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের মানিগাও গ্রামের আলাল উদ্দিনের স্ত্রী।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ৭ টার দিকে নিহত গৃহবধূ ফুলবানু তার ছোট ছেলে উমর ফারুককে খুজতে গিয়ে সে আর বাড়ি ফিরেনি। পরে গৃহবধূ ফুলবানু বাড়িতে ফিরে না আসায় পরিবারের লোকজন সারারাত আত্মীয় স্বজন সহ পরিচিত সব জায়গায়  খুঁজাখুঁজি তার কোন সন্ধান পায়নি । এক পর্যায়ে ২৫ নভেম্বর বুধবার ফজরের নামজের শেষে স্থানীয় একজন মসজিদের ইমাম মানিগাও গ্রামের নওয়াজ আলী মেম্বারের পুরান বাড়ীর পূর্ব দিকের একটি বাঁশ ঝাড়ের পাশে পরিত্যক্ত ক্ষেতে তার লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়দের জানায় । পরে বিষয়টি থানায় অবগত করলে তাহিরপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে গৃহবধূ ফুলবানুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। লাশ উদ্ধারের সময়ে লাশের একটি অংশ শিয়াল অথবা কুকুরে খেয়ে ফেলেছে বলেও পুলিশ জানায়।

নিহত ফুলবানুর স্বামী আলাল উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন,গ্রামের একটি চক্র আমার স্ত্রীকে প্রায় সময় বিভিন্নভাবে উক্তত্য ও কুপ্রস্তাব দিতো। আমার ধারণা তারাই আমার স্ত্রীকে জোরপূর্বক ধরে জঙ্গলে নিয়ে কিছু একটা করে মেরে ফেলেছে।

উত্তর বড়দল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাসেম জানান, একদিন আগে গৃহবধূর বড় ছেলে নিখোঁজের বিষয় টি আমাকে জানিয়েছে। আমি তাদের পরামর্শ দিয়েছি বিষয়টি পুলিশকে জানানোর জন্য।
লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে তাহিরপুর থানার ওসি মো.আব্দুল লতিফ তরফদার বলেন, গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে। লাশের একটি অংশ শিয়াল অথবা কুকুরে খেয়ে ফেলেছে। এটি হত্যা না আত্মহত্যা এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি হত্যা। তবে, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে ফেলে বিষয়টি পরিষ্কার ভাবে বলা যাবে। পুলিশ নিখোঁজ গৃহবধূর মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনের জন্য মাঠে কাজ করছে। এ ব্যাপারে তাহিরপুর থানায় মামলার প্রস্ততি চলছে।