• ২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৩০শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

ইতালি যেতে আগ্রহীদের মন্ত্রণালয়ের সতর্কবার্তা

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত নভেম্বর ২০, ২০২০
ইতালি যেতে আগ্রহীদের মন্ত্রণালয়ের সতর্কবার্তা

বিবিএন নিউজ ডেস্ক:ইতালি সরকার সম্প্রতি বাংলাদেশ হতে মৌসুমী এবং অমৌসুমী কর্মী নিয়োগের ঘোষণা দিয়েছে। ১২ অক্টোবর বাংলাদেশের নাম অনুমোদিত তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশের কর্মীদের জন্য ইতালিতে যাওয়া এবং সেখানে কাজ করার সুযোগ তৈরি হয়েছে। তবে ইতালি যেতে আগ্রহী বাংলাদেশিদের প্রলোভিত করতে বিভিন্ন দালালচক্র সক্রিয় হওয়ার প্রেক্ষিতে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় কিছু সতর্কতামূলক নির্দেশনা জারি করেছে, তা হলো-

ইতালিস্থ নিয়োগকারী অথবা মালিক তার নির্ধারিত SPID ইমেইল থেকে নিয়োগেচ্ছুক ব্যক্তির নাম, পাসপোর্ট নম্বরসহ ইতালির স্থানীয় ডিসি অফিসে অনাপত্তিপত্রের জন্য আবেদন করবেন; নিয়োগকারী/মালিকের আয়সহ অন্যান্য বিষয় বিবেচনা করে অনাপত্তিপত্র প্রদান করা হলে এ অনাপত্তিপত্র তিনি বাংলাদেশে সেই ব্যক্তির নিকট প্রেরণ করবেন; ব্যক্তি উক্ত অনাপত্তি পত্রসহ ইতালি দূতাবাসে ভিসার জন্য আবেদন করবেন; ভিসা নিয়ে ইতালিতে এসে তিনি নিয়োগকারী অথবা মালিকের সাথে সে দেশের ডিসি অফিসে গিয়ে চাকুরির চুক্তিপত্র স্বাক্ষর করবেন।

উল্লেখ্য, এ প্রক্রিয়ায় আবেদন দাখিলের সময় সরকার নির্ধারিত রেভিনিউ স্ট্যাম্প বাবদ ১৬ ইউরো পরিশোধ করতে হবে। যারা আবেদন দাখিলের জন্য সংশ্লিষ্ট হেল্পডেস্কের সহায়তা নিবেন, তাদের হেল্পডেস্কের সার্ভিসচার্জবাবদ একটি ফি পরিশোধ করতে হতে পারে, যা ক্ষেত্রবিশেষে ৫০-১০০ ইউরো পর্যন্ত হতে পারে। আবেদন দাখিলের ক্ষেত্রে এছাড়া অন্য কোনো খরচ নেই। ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ এর মধ্যে প্রাপ্ত আবেদনসমূহ বাছাই করে প্রত্যেক যোগ্য আবেদনকারীর অনুকূলে পৃথক পৃথক অনাপত্তিপত্র ইস্যু করা হবে। এরপর নির্ধারিত ভিসা ফি পরিশোধ করে নিজ নিজ দেশে অবস্থিত ইতালিয়ান দূতাবাসে ভিসার আবেদন জমা দিতে হবে।

এমতাবস্থায়, ইতালিতে কর্মীনিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে দালাল বা মধ্যসত্বভোগীদের ভুয়া প্রলোভনে পড়ে কোনো অবৈধ বা অনিয়মতান্ত্রিক আর্থিক লেনদেন না করতে বিদেশগমনেচ্ছু কর্মীগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সতর্ক করা হয়েছে।