• ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২২শে রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সাংসদ মানিকের পি এস মোশাহিদ আলী ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হচ্ছেন

bilatbanglanews.com
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০
সাংসদ মানিকের পি এস মোশাহিদ আলী ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হচ্ছেন

বিবিএন নিউজঃ সুনামগঞ্জ ৫ ( ছাতক-দোয়ারা বাজার) আসনের  সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিকের ব্যক্তিগত সহকারী (পি এস)  আওয়ামীলীগ নেতা মোশাহিদ আলী আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হচ্ছেন। এমন আলোচনা চলছে ছাতক, দোয়ারাবাজার উপজেলায়। বিশেষ করে ছাতক উপজেলার অবহেলিত নোয়ারাই ইউনিয়নের উন্নয়নে অনেকের পছন্দের প্রার্থী হিসেবে প্রচার করছেন।ছাতক উপজেলার  নোয়ারাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে মোশাহিদ আলীকে প্রার্থী হিসেবে দেখতে অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখালেখি ও প্রচার চালিয়ে আসছেন। এব্যাপারে মোশাহিদ আলী বিলাত বাংলাকে বলেন, দলের মনোনয়ন প্রাপ্তি সাপেক্ষ প্রার্থীতা নির্ভর করছে।       যেহেতু রাজনৈতিক ভাবে নির্বাচন হয় এবং আমি একটি রাজনৈতিক দলের কর্মী সেহেতু আমার প্রার্থীতা দলের সীদ্ধান্তের উপর নির্ভরশীল। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীতা নিয়ে তিনি নিজের নিজের ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন। বিলাত বাংলার পাঠকদের জন্য তা হুবহু নীচে দেয়া হল।                                      প্রিয় নোয়ারাই ইউনিয়নবাসী এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আমার সাথে যুক্ত বন্ধুগণ। আপনাদের সকলকে আন্তরিক শ্রদ্ধা ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আপনারা জানেন বিগত প্রায় দুই যুগ যাবত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তৃণমূল পর্যায়ের একজন কর্মী হিসাবে এবং মাননীয় সংসদ সদস্য জননেতা মুহিবুর রহমান মানিক মহোদয়ের ব্যক্তিগত সহকারী হিসাবে সততা ও নিষ্ঠার সাথে আমি দায়িত্ব পালন করে আসছি। এ পর্যায়ে আগামী ২০২১ সালে অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নোয়ারাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থী হিসাব আমাকে দেখার প্রত্যাশা জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে যারা সচিত্র স্ট্যাটাস ও মন্তব্য পোস্ট করে যাচ্ছেন, তাদের সকলের প্রতি আমি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি মনে করি এটা আমার বিগত দিনের কর্মের ফসল। আমার কাজের প্রাথমিক স্বীকৃতি। কেননা দীর্ঘদিন ক্ষমতার কাছাকাছি থেকেও আমি তার অপব্যবহার যেমন করিনি তেমনি রাজনীতিকে সম্পদ অর্জনের সিড়ি হিসাবেও বিবেচনা করিনি। আমার কাজের জন্য যাহাতে আমার মা-বাবা,আত্মীয়-স্বজন,বন্ধু-বান্ধব, পাড়া-প্রতিবেশী, গ্রাম, ইউনিয়ন তথা এলাকাবাসীর মুখে চুনকালি না পড়ে সেজন্য আমি সর্বদা সচেতন ছিলাম, এখনও আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো ইনশাআল্লাহ।

আমি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হতে পারবো কি পারবো না তা নিয়ে আমি মোটেও চিন্তিত নই। তবে আপনাদের আস্থাটা যাহাতে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ধরে রাখতে পারি তার জন্য আমি আপনাদের দোয়া ও আশির্বাদ চাই।
আমি বিশ্বাস করি মানুষের আস্থা অর্জন করার চেয়ে মহৎ কোন কাজ একজন রাজনৈতিক কর্মীর আর হতে পারেনা।
আর হ্যাঁ, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে যেহেতু রাজনৈতিক ভাবে নির্বাচন হয় এবং আমি একটি রাজনৈতিক দলের কর্মী সেহেতু আমার প্রার্থীতা দলের সীদ্ধান্তের উপর নির্ভরশীল।
সকলে ভালো থাকুন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •